সেখ সামসুদ্দিন, ১ মেঃ তাপপ্রবাহের হাত থেকে বাঁচতে ক্রমাগত নানা স্কুলে ছাতা দেওয়া হল পাল্লারোড পল্লীমঙ্গল সমিতির পক্ষ হতে। পূর্ব ঘোষণা মত ছাতা পৌঁছে দেওয়া হয় উলাড়া নন্দরানী স্মৃতি উন্নত প্রাথমিক বিদ্যালয় ও বড়শুল জুনিয়র বেসিক স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের হাতে। মেমারি বিধানসভার বিধায়ক এবং ডি.পি.এস.সি.র চেয়ারম্যান মধুসূদন ভট্টাচার্য্য ও বিশিষ্ট মহিলা উদ্যোগপতি রোশনী দাস ভট্টাচার্য সহ নানা গুণীজনদের উপস্থিতিতে ছাত্রছাত্রীদের হাতে ছাতা তুলে দেওয়া হয় ! প্রসঙ্গত বলা হয় আজ হয়ত বৃষ্টি হল কিন্তু তার আগে দুপুরের দিকে বাইরে বেরিয়ে দেখেছেন রোদের তীব্রতা কেমন ! গরমের শুরুতেই রোদে জেরবার সকলেই ! ২বছর গৃহবন্দী থেকে স্কুলে যেতে শুরু করেছে বাচ্ছারা। আর তাদের জন্যই ছাতার ব্যবস্থা। গ্রামের দিকে অনেক বাচ্ছার পরিবারেই নেই প্রত্যেকের ব্যবহারের জন্য আলাদা আলাদা ছাতা। আর তাই দ্বিতীয় পর্যায়ে ২ টি স্কুলের ১২০ জন বাচ্ছাদের হাতে তুলে দেওয়া হল ছাতা। তৃতীয় পর্যায়ে পাল্লারোড প্রাথমিক বিদ্যালয় সহ আরো কিছু স্কুলের শতাধিক পড়ুয়া পল্লীমঙ্গল সমিতির তরফে আবার এই সুবিধা পাবে বলে জানান পল্লীমঙ্গল সমিতির সাধারণ সম্পাদক সন্দীপন সরকার। এই পরিষেবা পৌঁছে দেওয়া হবে শীঘ্রই ছাত্রছাত্রীদের জন‍্য স্কুলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *