অবিনাশী,

শমিতা সেনগুপ্ত

অবিনাশ, তুই আজও আমায় ভালোবাসিস!

দেখেছিলাম তোকে এক অপূর্ব সকালে।
সারা শরীর বেয়ে বেজে চলেছে এক রুদ্রবীনা—
সে বীনার তান কখন যেন আমার বুকে এসে আছড়ে পড়লো।
দেখা হলো , কথা হলো না।
ঐযে সরসী, তোর মামাতো বোন, আমাকে এসে বললো তোর ভালোবাসার কথা!
স্নিগ্ধ শান্ত মন চকিতে দুরন্ত হয়ে উঠলো।
ভালোবাসা কাকে বলে অবিনাশ?
যৌবনের রূপ না তারুণ্যের অধিকার?
তোকে কখনো জিজ্ঞাসা করা হয়নি।
দেখা হলো বারবার, তবু কথা হলো না।

বয়সের সাথে সাথে সব কিছু বদলায়—
অপূর্ব সে হাসি, অপরূপ চাহনি….
তুইও তার ব্যতিক্রম নয়।
আয়না বলে যায় অসীম ভাঙনের কথা।
তবু মন কেন অবিচল?
তুই, অবিনাশ, আজ আশির এক যুবক।
আজো নাকি তুই একইরকম ভালোবাসিস!
সরসী বললো।

তোর শরীর ভেঙেছে। মন তোকে হারতে দেয়নি।
নদীর দুকূল রুক্ষ হয়েছে। এক স্রোতস্বিনী আজও সজীব, তা অবিনশ্বর।

One thought on “অবিনাশী”
  1. ‘বাংলার খবরাখবর’ সাহিত্য বার্তায় ‘অবিনাশী’ কবিতাটি প্রকাশিত হওয়ায় আমি শমিতা সেনগুপ্ত দেরায় অত্যন্ত আপ্লুত, অভিভূত ও সম্মানিত। এই পত্রিকার সকল সুধীজনকে আমার আন্তরিক শ্ৰদ্ধা, ভালোবাসা ও শুভকামনা জানাই।
    ?????❤️

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *