হাঁসখালিতে নিখোঁজ মেয়ে উদ্ধারে সিআইডি তদন্তের নির্দেশ হাইকোর্টের 

মোল্লা জসিমউদ্দিন
বুধবার কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি রাজশেখর মান্থারের এজলাসে এক নিখোঁজ মহিলা উদ্ধারে সিআইডি তদন্তের নির্দেশ জারি করা হয়েছে। নদিয়ার হাঁসখালি থানার অন্তর্গত  ভোলামারী  গ্রামের নারদ মণ্ডলের মেয়ে মুনমুন দে গতবছর  ৮ ই নভেম্বর   ভাইফোঁটা   উপলক্ষে শ্বশুরবাড়ি থেকে  বাবার বাড়ি এসেছিলেন।  কিন্তু বাবার বাড়ি থেকে  শ্বশুর  বাড়ি যাবার পথে অপহৃত হন বলে অভিযোগ।  স্থানীয় হাঁসখালি থানা প্রথমে অভিযোগ নিতে না চাইলেও পরবর্তীতে কোর্টের নির্দেশে এফআইআর  রুজু হয়। তদন্ত শুরু হয়  স্থানীয় থানার পক্ষ থেকে। থানার আইসি থেকে পুলিশ সুপার এর অফিস সব জায়গাতে ছোটাছুটি করলেও মেয়ের খোঁজ পাননি নারদ বাবু। অবশেষে  সংবিধান বিশেষজ্ঞ আইনজীবী বৈদূর্য ঘোষাল এর হাত ধরে কলকাতা হাইকোর্টে রিট পিটিশন দাখিল করেন। অপহৃত মেয়েকে খুঁজে দেওয়ার জন্য ও স্থানীয় থানার নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগে।  টানা চারদিন শুনানির পর বুধবার এই  মামলার তদন্তভার সিআইডি  এর হাতে তুলে  দেওয়ার নির্দেশ দেন  বিচারপতি রাজশেখর মান্থার।আবেদনকারীর  আইনজীবী বৈদুর্য ঘোষাল জানান -”  নিখোঁজ উদ্ধারে সমস্ত ধরনের পরিকাঠামো রয়েছে সিআইডির। কি অবস্থায় মেয়ে রয়েছে তা নিয়ে দুশ্চিন্তায় মেয়ের বাবা”।  সরকারি আইনজীবী জানান -‘স্থানীয় থানা সিআইডি  এর সাথেই  কাজ করছিলো।  তাই মামলা সিআইডি  তে সরাসরি  গেলে রাজ্যের কোনো আপত্তি নেই”। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *