পিংলা ধর্ষণ মামলায় এবার তদন্তভার মহিলা আইপিএস পারুলকুশ জৈনের হাতে

গোপাল দেবনাথ
শুক্রবার দুপুরে কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে পিংলার ধর্ষণ মামলার শুনানি চলে। এদিন পিংলার ধর্ষণের মামলাতেও মহিলা আইপিএসের নজরদারিতে তদন্তের নির্দেশ দিলো  কলকাতা হাইকোর্ট। আইপিএস পারুলকুশ জৈনের নেতৃত্বে তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছে কলকাতা  হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তবের ডিভিশন বেঞ্চ। তদন্ত প্রক্রিয়া চলবে আদালতের নজরদারিতেই তাও জানিয়ে দেয় কলকাতা হাইকোর্ট ।আগামী ২ মে এর মধ্যে তদন্তের রিপোর্ট দিতে হবে ধর্ষণ সংক্রান্ত মামলায়। বর্তমানে  কম্পালসরি ওয়েটিং-এ রয়েছেন ডিআইজি পারুলকুশ জৈন। এবার এই আইপিএস নেতৃত্বেই তদন্ত হবে পিংলার ধর্ষণ কান্ডে। এছাড়া শান্তিনিকেতন, ময়নাগুড়ি, নেত্রা সহ সব ধর্ষণ মামলাতেই ২ মে তদন্তে অগ্রগতির রিপোর্ট তলব করেছে কলকাতা হাইকোর্ট।শুক্রবার  নামখানার ধর্ষণ মামলায় কলকাতা হাইকোর্টের  প্রধান বিচারপতি এজলাসে জানান , -‘ নামখানার ঘটনা অত্যন্ত গুরুতর।  সেই কারণেই  আইপিএস দময়ন্তী সেনের উপর নামখানার ঘটনার তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হলো’। ইতিপূর্বে  মাটিয়া সহ রাজ্যের আরও চারটি ধর্ষণের তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া রয়েছে। অপরদিকে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার  পিংলার যে ঘটনা রয়েছে, তাতে তৃণমূল কংগ্রেসের এক নেতার নাম উঠে এসেছে। এক্ষেত্রে পিংলার তদন্ত যদি শুধু স্থানীয় পুলিশের তরফ থেকে করা হয়, তাহলে বিষয়টি নিরপেক্ষ নাও হতে পারে। পুলিশকর্মীদের উপর চাপ থাকতে পারে। সেই কারণেই এই ঘটনার তদন্ত কারও পর্যবেক্ষণ বা তত্ত্বাবধানে করা প্রয়োজন বলে মনে করছে কলকাতা হাইকোর্ট।আইপিএস দয়মন্তী সেনের হাতে পাঁচটি ধর্ষণের ঘটনায় তদন্তভার দেওয়া হয়েছে। এরপর পিংলার ঘটনায় আরেক  মহিলা আইপিএস পারুলকুশ জৈন এর হাতে তুলে দিল কলকাতা হাইকোর্ট।  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *