প্রশাসন

বারাবনিতে গাছ মাফিয়াদের দৌরাত্ম ক্রমশ বাড়ছে

প্রশাসনকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে দিনের আলোয় চলছে গাছ কাটা

কাজল মিত্র

:-দিনেরপর দিন চলছে গাছ চুরির ঘটনা আর সরকারের সচেতনতা সত্ত্বেও বেড়ে চলেছে কাঠ চোরদের করবার ,যারফলে আসানসোল শিল্পাঞ্চলের বিস্তীর্ণ এলাকায় পরিবেশের ভারসাম্য নষ্ট হচ্ছে বলে অভিযোগ পরিবেশ কর্মীদের।
এমনি আবার গাছ চুরির ঘটনা ঘটল বারাবনি ব্লকের জামগ্রাম পঞ্চায়েত অন্তর্গতকাটা পাহাড়িতে ।এদিন জামগ্রাম পঞ্চায়েতের কাটাবেরিয়ার কাছে একটি সরকারি মদের দোকানের রাস্তার সামনেই দিনের বেলায় অনায়াসে চলছে গাছ চুরি ।যেখানে বহু বছরের একটি পুরোনো মহুল গাছ কেটে ফেলল চোরের দল।
তবে ঘটনার খবর পেয়ে সাংবাদিকরা পৌঁছালে চোরেরা তড়িঘড়ি চম্পট দেয় ।
যেখানে প্রশাসন ও রাজ্য সরকার বারবার মানুষের কাছে আবেদন করছে গাছ লাগানোর জন্য সেই জায়গায় কি ভাবে কোনো প্রকার অনুমতি ছাড়ায় দিনের বেলায় কাউকে পাত্তা না দিয়ে গাছ মাফিয়ারা গাছ কাটছে।
তার উপর কিছু দিন আগে জামগ্রাম পঞ্চায়েতে পালিত হলো বনমহৎ উৎসব,সেই জায়গায় কী ভাবে বিলুপ্ত প্রজাতির গাছ কেটে নিলো গাছ চোরের মাফিয়ারা,এই
ঘটনায় প্রশ্ন উঠেছে বনবিভাগ ও প্রশাসনের উপর।এই ঘটনা প্রসঙ্গে জামগ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান কেশব রাউথ জানান কোনো প্রকার গাছ কাটার অনুমতি পঞ্চায়েত দেয়না,কারন সর্ব ক্ষেত্রে আমরা মানুষ দের বলি সুস্থ জীবন চাইলে গাছ লাগান,কে বা কারা গাছ কাটছে তা আমার জানা নেই,তবে যারা এই কাজ করছে তারা অপরাধী, আমি নিজে এই বিষয়ে প্রশাসন ও বনবিভাগের সাথে কথা বলবো।
গাছ কাটার খবর পাওয়ার পর গৌরান্ডি বিট অফিসার সুমন্ত দাস ঘটনা স্থলে জান এবং কেটে ফেলা গাছের গুড়িগুলি আটক করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *