ক্রীড়া সংস্কৃতি

কুমুদ সাহিত্য মেলা কিভাবে হলো

জ্যোতি প্রকাশ মুখার্জ্জী

       শীতকাল মানেই উৎসবকে কেন্দ্র করে একটা 'মেলা'-র আবহ। 'মেলা'-র প্রচলিত ধারণার বাইরে বের হয়ে গত বারো বছর ধরে পূর্ব বর্ধমানের মঙ্গলকোটের কোগ্রামে অনুষ্ঠিত হয়ে চলেছে আর এক মেলা - কুমুদ সাহিত্য মেলা। পল্লীকবি কুমুদরঞ্জন মল্লিকের জন্মদিনকে স্মরণীয় করে তোলার জন্য কবির জন্মদিন ৩ রা মার্চে ছোট্ট করে এই সাহিত্য মেলা শুরু করেছিলেন কবি-সাংবাদিক শ্যামলাল মকদমপুরী। সুদূর সালার থেকে এসে এই মেলা পরিচালনা করতে অসুবিধা হওয়ার জন্য তিনি সেই দায়িত্ব তুলে দেন আর এক কবি-সাংবাদিক মঙ্গলকোটের ভূমিপুত্র মোল্লা জসিমউদ্দিনের হাতে। তারপর থেকে ধীরে ধীরে এই মেলা হয়ে উঠেছে দক্ষিণবঙ্গের অন্যতম বৃহত্তম সাহিত্য মেলা।
      নির্দিষ্ট দিন অর্থাৎ ৩ রা মার্চ রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে কবি, সাহিত্যিক, শিল্পী, প্রশাসনিক আধিকারিক, সাংবাদিক সহ সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষ এসে উপস্থিত হন। সারাদিন  সাহিত্যচর্চার পাশাপাশি  বিশিষ্টদের সঙ্গে সঙ্গে সাধারণ মানুষকে সম্বর্ধনা দেওয়া হয়। বহু মানুষের উপস্থিতিতে সেটা সত্যিকারের মেলা অর্থাৎ মিলনস্হল হয়ে ওঠে।
       মেলা কমিটির সম্পাদক মোল্লা জসিমউদ্দিন বললেন - মানুষের সহযোগিতায় আমরা এই সাহিত্য মেলা করে চলেছি। আমাদের লক্ষ্য কবিকে স্মরণ করার পাশাপাশি সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে যারা অবদান রেখে চলেছেন তাদের স্বীকৃতি দেওয়া।

 1,856 12,89,834

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *