প্রশাসন

সালানপুরে কয়লাখনিতে বিক্ষোভ নিরাপত্তারক্ষীদের

পুনরায় কাজের দাবিতে কয়লাখনি বন্ধ করে নিরাপত্তা রক্ষিদের বিক্ষোভ

কাজল মিত্র

:- তাঁদেরকে আর প্রয়োজন নেই। কাজ করতে এসেই জানতে পারে একটি নিরাপত্তা সংস্থার ১২৫ জন নিরাপত্তা রক্ষী।
শুক্রবার ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিমবর্ধমান জেলার সালানপুর মোহনপুরে।এ দিন সকাল থেকে সকাল দুপুর ২ টা পর্যন্ত মোহনপুর আমডিহা রাস্তায় কোলিয়ারীর কাজ বন্ধকরে বিক্ষোভ চলে। বিক্ষোভে শামিল ১২৫ জন নিরাপত্তা রক্ষীদের দাবি,তাঁরা গত দুই’বছর ধরে মোহনপুরে “ব্রাইট সিকুরিটি সার্ভিসেস প্রাইভেট লিমিটেড”কোম্পানির আওতাধীন নিরাপত্তা রক্ষীর কাজ করে আসছে কিন্তু তারা আজ কাজে এলে তাদের বলা হয় কাল থেকে আর আসতে হবে না ।আর তাই তাঁরা “কাজ থেকে বাদ দেওয়ার প্রতিবাদে মোহনপুর কলিয়ারীর অফিসের সামনে তৃণমূলের দলীয় পতাকা হাতে নিয়ে বিক্ষোভ দেখায়।ঘটনার খবর পেয়ে সালানপুর থানার পুলিশ পবিত্র কুমার গাঙ্গুলি, মিঠুন চ্যাটার্জি, সামডি পাহারগড়া ক্যাম্প ইনচার্জ মানিক মন্ডল ,বারাবনী থানার পুলিশ ও সিআইএসফ এর সুরক্ষা কর্মীরা এসে দু’পক্ষের সঙ্গে আলোচনায় বসার কথা বলেন।
এদিন বিক্ষোভে সামিল বিপল্প রায় ,লব সিং, উপেন্দ্র সিং,শশাঙ্ক সিং,বাবাই অধিকারী জানান যে নিরাপত্তা এজেন্সীর হয়ে তাঁরা দুই বছর ধরে কাজ করছে মোহনপুর এর খোলামুখ খনিতে আর এতদিন কাজকরার পর এই লকডাউনের সময় অভাবের সংসারে তাঁদেরকে কেন বাদ দেওয়া হল, সেই প্রশ্নেই এ দিন সরব হল বিক্ষোভকারীরা। আন্দোলন কারীদের দাবি সংস্থার খনিতেই আমাদের কাজ দিক তা না হলে বৃহত্তর আন্দোলনে যেতে বাধ্য হব।
এদিন কয়লাখনি সংস্থার এজেন্ট ম্যানেজার পি.কে.ঝাঁ বলেন প্রথমত যাঁরা এদিন কাজ আটকে ছিলেন সেই নিরাপত্তা রক্ষীরা আমাদের সংস্থার কর্মী নন। একটি নিরাপত্তা এজেন্সীর লোক।আমাদের চুক্তি সেই এজেন্সীর সঙ্গে অতএব এবিষয়ে আমার কিছু বলার নেই।
তবে শেষ পর্যন্ত তাদের কোন প্রতিশ্রুতি না মেলায় অবশেষে বারাবনী বিধায়ক বিধান উপাধ্যায় ও বারাবনি ব্লক সভাপতি অসিত সিং এর তত্বাবধানে ওই সিকুরিটি সংস্থার আধিকারিকদের সাথে কথা বলে তাদের পুনরায় একমাসের মেয়াদ বাড়ানো হয়, ও তাদের কাজে রাখার কথা বলা হয় তারপর তারা এই বিক্ষোভ তুলে নেয় ও বিধায়ক সহ অসিত সিং মহাশয়কে কে ধন্যবাদ জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *