ক্রীড়া সংস্কৃতি

শিয়ালদহে যুথিকা পত্রিকার বিশ্ববঙ্গ কবিতা উৎসব

নীহারিকা মুখার্জি,

  একগুচ্ছ কবি-সাহিত্যিকের উপস্থিতিতে 'যুথিকা সাহিত্য পত্রিকা'-র সম্পাদক সাহিত্যবন্ধু সোমনাথ নাগের উদ্যোগে গত ৩১ শে জানুয়ারি  শিয়ালদহের কৃষ্ণপদ ঘোষ মেমোরিয়াল ট্রাস্ট ভবন সভাগৃহে 'বিশ্ববঙ্গ কবিতা উৎসব' অনুষ্ঠিত হয়।  
   অনুষ্ঠানে ৭০ জন কবির কবিতা পাঠ এবং বিশিষ্ট ব্যক্তিদের সাহিত্য আলোচনা উপস্থিত শ্রোতাদের মুগ্ধ করে। কাব্য জগতে বিশেষ অবদানের জন্য ৬০ জন কবিকে বিশ্ববঙ্গ বাংলা সাহিত্য একাডেমি থেকে 'কাব্য উৎকর্ষ সম্মাননা' প্রদান করা হয়। বর্ষসেরা পত্রিকা হিসেবে  কুসুম, মেঘদূত, দীপায়ন , বিনোদন ও উওরণ- এই পাঁচটি পত্রিকাকে সম্মাননা দেওয়া হয়। এইদিন যুথিকা সাহিত্য পত্রিকার নিজ উদ্যোগে  কাব্যশ্রী কবি স্বপন রায়ের 'সাঁকো' ও 'হঠাৎ দেখা', ডঃ পিনাকী বসুর 'বিশ্বে বিশ্ব নীল', কবি গৌরী রায় চৌধুরীর 'অনুরণন' ও 'স্বপ্নের ছন্দ', কবি সুশান্ত ঘোষের 'পাগলাদাশুর সংসার' , জীবন রাজবংশীর 'জীবন ঘুড়ি', সোমা বিশ্বাসের 'হালি কাব্য সম্ভার', কবি রাজু মন্ডলের 'মৌলিক অভিশাপ', কৌশিক গাঙ্গুলীর 'একা তবু একা নই', সোমনাথ নাগ সম্পাদিত 'অরন্য রেণু', নারায়ণী দত্ত সম্পাদিত অনুকাব্য 'মালা', সোমাবিশ্বাস সম্পাদিত 'আলোর দিশা' সাহিত্য পত্রিকা, সঞ্জয় চক্রবর্ত্তী সম্পাদিত 'সারস্বত' সাহিত্য পত্রিকা সহ বেশ কয়েকটি পত্রিকা  প্রকাশিত হয়। 
  উদ্বোধন অনুষ্ঠানে  উপস্থিত ছিলেন কবি সঞ্জয়কুমার মুখোপাধ্যায়, দেবপ্রসাদ বসু, সুশান্ত ঘোষ, জয়ন্তী দেবনাথ প্রমুখ। 
     এই অনুষ্ঠানে সম্মানিত হন বার্ণপুরের মুনমুন মুখার্জ্জী। তিনি বলেন - বিশিষ্ট কবিদের উপস্থিতিতে পুরষ্কার পেতে খুবই ভাল লাগে। এটা কাব্য চর্চার ক্ষেত্রে প্রেরণা যোগাবে।
     উৎসবের প্রধান উদ্যোক্তা সাহিত্যবন্ধু সোমনাথ নাগ বলেন- গত সাত বছর ধরে ২১ শে মার্চ দিনটিতে আমরা এই অনুষ্ঠান করে চলেছি। করোনা অতিমারির জন্য গত বছর আমরা এই অনুষ্ঠান বন্ধ রাখি। বিভিন্ন কারণে আমরা এই বছর আগে করার সিদ্ধান্ত নিই। মূলত প্রবীণ কবিদের উপস্থিতিতে নবীন কবি প্রতিভাদের উৎসাহ দেওয়ার জন্য আমরা এই কবিতা উৎসবের আয়োজন করে থাকি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *