হাইকোর্ট সংবাদ

বিজেপি নেতা উলেন রায়ের মৃত্যুর তদন্তে এডিজি সিআইডি

মোল্লা জসিমউদ্দিন টিপু,

 
বৃহস্পতিবার দুপুরে উত্তরবঙ্গের জলপাইগুড়ি সার্কিট বেঞ্চে ( কলকাতা হাইকোর্টের শাখা)  বিচারপতি মৌসুমি ভট্টাচার্যের এজলাসে বিজেপি কর্মীর অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনার মামলার শুনানি চলে। সেখানে বিচারপতি এই অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলায় সিআইডির এডিজি কে চার সপ্তাহের মধ্যেই তদন্ত শেষ করার নির্দেশ দেন। অর্থাৎ ৫ ই মার্চের মধ্যে বিজেপি কর্মী উলেন রায়ের অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলায় তদন্ত শেষ করতে হবে। তার আগে অর্থাৎ ২২ ফেব্রুয়ারিতে এই মামলার তদন্তের অগ্রগতি রিপোর্ট জানাতে হবে সিআইডি কে। এই মামলার শুনানিতে ভার্চুয়াল এবং সশরীরে বেশ কয়েকজন আইনজীবী অংশগ্রহণ করে থাকেন।সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মহেশ জেটমালিনি যেমন ছিলেন। ঠিক তেমনি কলকাতা হাইকোর্টের আইনজীবী রাজদীপ মজুমদার ছিলেন। রাজ্যের এডভোকেট জেনারেলের পাশাপাশি সিবিআইয়ের তরফে সুদীপ্ত দাস ছিলেন এই মামলার আইনজীবী। উল্লেখ, গত বছর ৭ ডিসেম্বর বিজেপির ঘোষিত কর্মসূচি ছিল উত্তরকন্যা অভিযান। শিলিগুড়ির ফুলবাড়ি এলাকায় উলেন রায় (৫০) নামে এক বিজেপি কর্মীর গুলিবিদ্ধ অবস্থায় মৃত্যু ঘটে। এই ঘটনায় মিছিলের ভেতর সশস্ত্র দুস্কৃতিদের আক্রমণে এই নিহতর ঘটনা বলে দাবি করা হলেও, বিজেপির তরফে অভিযোগ তোলা হয় পুলিশের শটগানে গুলিতে এই মৃত্যু। ময়নাতদন্ত নিয়ে দফায় দফায় জটিলতা দেখা যায়।কখনো এসিজেম এজলাস আবার কখনো বা জেলাজজের এজলাসে উঠে এই মামলা।এই মামলার তদন্তভার জেলা পুলিশ থেকে যায় সিআইডির হাতে।তবে তদন্তে কোন অগ্রগতি না হওয়ায় নিহতের পরিবারের তরফে সিবিআই তদন্ত দাবি তোলা হয়। বৃহস্পতিবার দুপুরে কলকাতা হাইকোর্টের জলপাইগুড়ি সার্কিট বেঞ্চে বিচারপতি মৌসুমি ভট্টাচার্যের এজলাসে উঠে এই মামলা।সেখানে বিচারপতি একমাসের সময়সীমা বেঁধে সিআইডির এডিজি কে তদন্ত প্রক্রিয়া শেষ করার নির্দেশ দেন। পাশাপাশি ২২ ফেব্রুয়ারিতে এই মামলার তদন্তের অগ্রগতি রিপোর্ট জমা দেওয়ার নির্দেশও রয়েছে। 

 307 12,89,834

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *