রাজনীতি

বিরোধীদের এক ইঞ্চি জমি দেবেনা গলসি তৃণমূল

জ্যোতিপ্রকাশ মুখার্জি,

     পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা ভোট যত এগিয়ে আসছে রাজনৈতিক দলগুলোর তৎপরতা তত বাড়ছে। মিটিং, মিছিল, পথসভা, ঘরে ঘরে প্রচার  ইত্যাদিতে সামান্য হলেও এগিয়ে আছে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস।
  আগামী বিধান সভা ভোটকে সামনে রেখে গত ৩১ শে জানুয়ারি পূর্ব বর্ধমানের গলসী-২নং ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস কার্যালয়ে দুই বিধায়ক নবীন চন্দ্র বাগ ও অলোক মাঝির উপস্থিতিতে ব্লক কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। দলীয় সূত্রে জানা যাচ্ছে আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে দল কিভাবে এখানে সমস্ত মান-অভিমান ভুলে সবাই মিলে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়াই করবে সেই বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। 
    দলীয় নেতৃত্ব যতই অস্বীকার করার চেষ্টা করুক না কেন স্হানীয় সূত্রে জানা যাচ্ছে গলসী -১ ও ২ নং ব্লকে গোষ্ঠী দ্বন্দ্বের একটা চোরাস্রোত আছে। সেই চোরাস্রোত দূর করাও ছিল এই আলোচনা সভার লক্ষ্য। প্রসঙ্গত বর্তমানে এলাকার দুই বিধায়কই তৃণমূলের।
      আলোচনা সভায়  উপস্থিত ছিলেন ব্লক সভাপতি সুজন মণ্ডল, সহ-সভাপতি শৈলেন হালদার, জেলা সহ-সভাপতি নব কুমার হাজরা, পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি বাসুদেব চৌধুরী, ব্লক  যুব সভাপতি হেমন্ত পাল, সংখ্যালঘু সেলের সভাপতি আমানুল্লা মণ্ডল, এস.সি সেলের সভাপতি নিমাই বাগদি, জেলা পরিষদের সদস্য সুভাষ পুঁইলে ও সদস্যা সবিতা ঘোড়ুই, মহিলা সভানেত্রী শাহনাজ বেগম, কৃষাণ ক্ষেত মজুর সভাপতি কৌশিক সাম, জয় হিন্দ বাহিনীর সভাপতি গুল মহঃ মোল্লা, ছাত্র পরিষদ সভাপতি ইদল হোসেন সহ সকল অঞ্চল সভাপতি, দলীয় অঞ্চল প্রধান ও ব্লক কমিটির সকল সদস্যরা। এক কথায় বলা যেতে পারে সমস্ত গোষ্ঠীর লোকজন আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন।
       পরে অলোক মাজি বলেন - দল বড় হচ্ছে। ছোটখাটো মান অভিমান থাকতেই পারে। সেটা সম্পূর্ণ ঘরোয়া বিষয়। ভোটের ময়দানে বিরোধীদের যে এক ইঞ্চি জমি ছাড়া হবেনা সে ব্যাপারে আমরা সবাই একমত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *