ক্রীড়া সংস্কৃতি

গুসকারার প্রাক্তন অধ্যাপকের ছেলের জন্মদিন পালন অন্যভাবে

জ্যোতিপ্রকাশ মুখার্জি,

    গুসকরা কলেজের প্রাক্তন অধ্যাপক প্রবাল গিরি এতদিন তার একমাত্র পুত্র দিব্যায়ুধের  জন্মদিন চারদেওয়ালের মধ্যে পালন করেছেন। সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতেন আত্মীয়-স্বজন সহ কিছু কিছু ঘনিষ্ঠ বন্ধু-বান্ধব। কিন্তু এবার প্রবল ঠান্ডার মধ্যে খোলা আকাশের নীচে অসহায় মানুষগুলিকে দেখে তিনি ছেলের জন্মদিনের আনন্দ তাদের সঙ্গেই ভাগ করে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। যোগাযোগ করেন পূর্ব বর্ধমানের গুসকরার স্বেচ্ছাসেবী সংস্হা 'নতুন দিশা'-র কর্ণধার সুবীর রানার সঙ্গে। তার হাতে তুলে দেন ১২০ টি সোয়েটার ও চাদর। একই সঙ্গে খাওয়ানোর ব্যবস্হা করেন।
  প্রসঙ্গত সুবীর রানার সংস্হা গত কয়েক বছর ধরে প্রতি রবিবার গুসকরা স্টেশন সংলগ্ন এলাকার দুস্থদের খাওয়ানোর ব্যবস্হা করে চলেছে। বর্তমানে অনেক সহৃদয় মানুষ তার দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিচ্ছে। ফলে আরও বেশি সংখ্যক মানুষকে তাদের  পক্ষে খাওয়ানো সম্ভব হচ্ছে।
      প্রতিবারের মত এবারও সুবীর বাবুর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন রূপা, মৌসম, শুভাশীষ, মানিয়া, চাঁদু, ময়না, সৌনক, কুশল প্রমুখ।
     প্রবাল বাবু বলেন - দীর্ঘদিন ধরে গুসকরায় ছিলাম। স্টেশন সংলগ্ন অসহায় মানুষগুলোকে দেখে বড় কষ্ট হয়। সুবীরের সংস্হার কথা জানতাম। তাই তার সাহায্যে মনের ইচ্ছেটা পূরণ করলাম। ভবিষ্যতেও সুবীরের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করব।
    সুবীর বাবু বলেন -

আমার সংস্হার নিজস্ব কোনো আয় নাই। প্রথম প্রথম নিজের পকেট থেকে খরচ করে অল্প সংখ্যক মানুষের পাশে দাঁড়াতাম। এখন অনেক সহৃদয় মানুষ পাশে দাঁড়ানোতে কাজটা সহজ হচ্ছে। এছাড়া আমার সংস্হার সদস্যরা নিঃস্বার্থ ভাবে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিচ্ছে। আমি তাদের কাছে কৃতজ্ঞ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *