প্রশাসন

জাতীয়স্তরে রাজ্যের পিপিপি মোডে পরিচালিত আইটিআই গুলির স্বীকৃতি

আমিরুল ইসলাম


কারিগরি শিক্ষায় অভাবনীয় সাফল্য, জাতীয়স্তরে রাজ্যের পি.পি.পি মোডে পরিচালিত আই.টি.আই গুলির স্বীকৃতি

কেন্দ্র সরকারের স্কিল ডেভেলপমেন্ট মন্ত্রকের গ্রেডিং-এর মূল্যায়নে রাজ্যের আই.টি.আই-গুলির শীর্ষস্থান

এবছর কেন্দ্র সরকারের স্কিল ডেভেলপমেন্ট মন্ত্রকের অধীন , ডাইরেক্টর জেনারেল অফ ট্রেনিং- এর সদ্য প্রকাশিত গ্রেডিং তালিকায় সারাদেশে শীর্ষ স্থান অধিকার করেছে নদীয়া জেলার নাকাশিপাড়া গভঃ আই.টি.আই। এটি রাজ্য সরকারের সাথে পি.পি.পি মোডে পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছে একটি বেসরকারি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা । একই সংস্থার অধীন কালীগঞ্জ গভঃ আই.টি.আই দেশে তৃতীয় স্থানে, বাঁকুড়া জেলার খাতরা গভঃআই.টি.আই চতুর্থ স্থানে ও বীরভূম জেলার দুবরাজপুর গভঃ আই.টি.আই নবম স্থানে রয়েছে।
এছাড়াও পিপিপি মোডে অপর একটি সংস্থার পরিচালনাধীন পূর্ব বর্ধমানের পূর্বস্থলী-২ গভঃ আই.টি.আই পঞ্চম স্থানে, পশ্চিম মেদিনীপুরের নয়াগ্রাম-গভঃ আই.টি. আই সপ্তম স্থানে ও পূর্ব বর্ধমানের পূর্বস্থলী-১ গভমেন্ট আই. টি. আই দশম স্থানে রয়েছে।
পরিকাঠামো, প্রশিক্ষণের গুণগতমান ও অন্যান্য বৈশিষ্ট্যের পরিপ্রেক্ষিতে এই গ্রেডিং করে থাকে কেন্দ্র সরকারের এই মন্ত্রক।
স্বাভাবিকভাবেই রাজ্যের কারিগরি শিক্ষার এই সাফল্যে উচ্ছ্বসিত শিক্ষক-শিক্ষিকা, প্রশিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা।

সংস্থা দুটির সভাপতি শ্রী মলয় পীট জানান, “এই অভূতপূর্ব সাফল্যের কৃতিত্ব আমি পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী শ্রীমতি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে উৎসর্গ করলাম। কারন তাঁর ভাবনা থেকেই সরকারী উদ্যোগে কলেজগুলি রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় প্রতিষ্ঠিত হয় এবং তাঁর সদিচ্ছাতেই। আমাদের মতো কয়েকটি সংস্থা সেগুলি পিপিপি মোডে পরিচালনার দায়িত্ব পায়”। তিনি, রাজ্যের কারিগরি শিক্ষা বিভাগ, আইটিআই গুলির শিক্ষক ও শিক্ষা কর্মীদের প্রচেষ্টার ভূয়শী প্রশংসা করেন।
একথা অনস্বীকার্য যে, সারাদেশব্যাপী এই মূল্যায়নে রাজ্যের আইটিআই কলেজ গুলির অভূতপূর্ব সাফল্য গর্ব করার মতো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *