প্রশাসন

গলসির ভূঁড়ি অঞ্চলে ইকো পার্ক

জ্যোতিপ্রকাশ মুখার্জি,


অবশেষে পূর্ব বর্ধমানের গলসী ২ নং ব্লকের ভূঁড়ি অঞ্চলের জুজুটি ও তার পার্শ্ববর্তী গ্রামের মানুষের দীর্ঘদিনের দাবি পূরণ হলো। মানুষের দাবি মেনে গত ১৬ ই জানুয়ারি ভূড়ি অঞ্চলের উপপ্রধান তথা তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি সুবোধ ঘোষের সক্রিয় উদ্যোগে দামোদর নদ সংলগ্ন জুজুটি বাঁধে নির্মিত ইকো-পার্ক ও জুজুটি মেলার কাছে জনসাধারণের সুবিধার্থে নব নির্মিত বিশ্রামাগারের উদ্বোধন হয়। উদ্বোধন করেন স্হানীয় বিধায়ক নবীনচন্দ্র বাগ। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন গলসী ২ নং পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি বাসুদেব চৌধুরী, ব্লক সভাপতি সুজন মণ্ডল সহ তৃণমূলের স্হানীয় নেতা-কর্মী ও বহু সাধারণ মানুষ। অনুষ্ঠানে উপস্থিত প্রত্যেক বক্তা সুবোধ বাবুর উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসা করেন।
প্রসঙ্গত বছর পাঁচেক আগে একশ দিনের কাজ করার সময় সংশ্লিষ্ট বাঁধে দুটি শিব মন্দির আবিষ্কৃত হয়। ধর্মপ্রাণ মানুষের ভিড় বাড়তে থাকে। এলাকার মানুষ তৎকালীন প্রধান সুবোধ বাবুর কাছে মন্দির দুটি সংরক্ষণ সহ বাঁধটিতে একটি পরিবেশ বান্ধব পার্কের দাবি তোলেন। মানুষের দাবি মেনে তিনি বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলোচনা করে পঞ্চায়েতের উদ্যোগে পার্ক তৈরির কাজ শুরু করেন। স্হানীয় বিধায়কও আর্থিক সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন।
এর আগে তৃণমূলের দীর্ঘদিনের একনিষ্ঠ কর্মী প্রয়াত বাসুদেব বেজের স্মৃতির উদ্দ্যেশে এক স্মরণ সভা আয়োজিত হয়। শুধু দলীয় নেতা-কর্মীরা নয় সাধারণ মানুষও মিশুকে বাসুদেব বেজের প্রতিকৃতিতে মাল্যদান করেন।
পরে সুবোধ বাবু বলেন – বাসুদেবকে অকালে হারিয়ে আমরা খুবই মর্মাহত। তিনি আরও বলেন – মানুষ আমাদের কাজ করার জন্য ভোট দিয়েছে। সেই মানুষের স্বার্থে পার্ক ও বিশ্রামাগারটি তৈরি করতে পেরে আমরা গর্বিত। পার্কটি এলাকার যেমন সৌন্দর্য ব‍ৃদ্ধি করবে তেমনি মানুষের বিনোদনের একটা জায়গা হবে। যদিও কিছু কাজ বাকি আছে, তবে দ্রুত সেই কাজ শেষ হবে। পার্কটির যাতে কোনো রকম সৌন্দর্য হানি না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখার জন্য তিনি সাধারণ মানুষের কাছে আবেদন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *