প্রশাসন

সরকারি কর্মীদের বিক্ষোভ ভাতার বিডিও কে ঘিরে

ভাতার বিডিওর বদলী চাইছেন অধীনস্থ কর্মীরা 

আমিরুল ইসলাম (বাপি),

  ; গত সোমবার দুপুরে ব্লক প্রশাসনের আভ্যন্তরীণ বিবাদে নাগরিক পরিষেবা থেকে একপ্রকার বঞ্চিত হলো এলাকাবাসী। ঘটনার সুত্রপাত এক ব্লক কর্মীর ইস্তফা কে ঘিরে।সারাদিন অবস্থান বিক্ষোভ করে স্মারকলিপি জমা দেওয়া হলো পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি কে।ভাতার ব্লক উন্নয়ন আধিকারিক কে অপসারণের দাবিতে প্রায় কর্মী স্মারকলিপি জমা দেয় পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি কে।পূর্ব বর্ধমান জেলার ভাতার ব্লক উন্নয়ন আধিকারিক তপন সরকার কে অবিলম্বে অপসারণ করতে হবে, তারই দাবিতে সরব হয়ে ওঠে ব্লকের প্রায় সরকারি কর্মচারীরা। প্রথমে ব্লক অফিসের সামনে বিক্ষোভ দেখায় প্রায় পঞ্চাশ  জন সরকারি কর্মী  ।তারা স্লোগান দেয় ব্লক উন্নয়ন আধিকারিক কে অপসারণ করতে হবে।উল্লেখ্য গত পয়লা জানুয়ারি এক ডেটা এন্ট্রি  আধিকারিক ইস্তফা  দেন।তারই পরিপ্রেক্ষিতে আজ ব্লকের প্রায় কর্মী ব্লক অফিসের সামনে বিক্ষোভ দেখান।বিক্ষোভরত কর্মীরা জানান -“আমরা সরকারি চাকরি করতে এসেছি। আমরা কাজ করবো কিন্তু আমাদের সঙ্গে এমন ব্যবহার করা হচ্ছে তাতে করে আমরা আর সহ্য করতে পারছি না ।তাই অবিলম্বে ব্লক উন্নয়ন আধিকারিক  অপসরণের দাবি জানাচ্ছি”।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সরকারি আধিকারিক বলেন -” প্রতিদিনই রাত করে কাজ করাচ্ছেন এই ব্লক আধিকারিক । কাজের শেষে আমরা কিভাবে বাড়ি যাবো তিনি তা ভাবছেন না, আমাদের কে বাইকে করে প্রায় কুড়ি থেকে ত্রিশ কিলোমিটার রাস্তা যেতে হচ্ছে মধ্যরাতে, অথচ আমাদের বি,ডি,ও সাহেব মাত্র 100 মিটার রাস্তা আসেন চারচাকা গাড়ি চেপে। আমরা বুঝতে পারছি না উনার এই আচরণের মানে কি”।অপরদিকে ব্লক উন্নয়ন আধিকারিক সংবাদমাধ্যম কে জানান, -“আমি কোন কর্মচারীর ওপর খারাপ ব্যবহার করিনি।যিনি ইস্তফা  দিয়েছেন উনি স্বেচ্ছায় দিয়েছেন।  আমি সেটি জেলা উন্নয়ন আধিকারিক কে পাঠিয়েছি”।ভাতার ব্লকের প্রায় সরকারি কর্মী  জানান – ” বিডিওর বদলী না হলে আমরা বৃহৎ আন্দোলন নামবো”।জানা গেছে, রাজ্য সরকারের ‘দুয়ারের সরকার’ কর্মসূচির বাস্তবায়ন ঘটাতে গিয়ে প্রতিটি ব্লক প্রশাসনের নাভিশ্বাস উঠছে।রাত নয়টা – দশটা পর্যন্ত বিডিওরা কাজের তদারকিতে থাকছেন ব্লক অফিসে।সেই চাপ পড়ছে ব্লকের অধীনস্থ কর্মীদের মধ্যে।এটি তারই এক প্রতিফলন বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।   

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *