রাজনীতি

পঞ্চায়েত ভোটে ছুরিকাহত হয়েও বহিস্কৃত হলেন বীরভূমের সেই কালোসোনা মন্ডল

খায়রুল আনাম

আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনের আগে দলের স্বচ্ছ ভাবমূর্তি সাধারণের কাছে তুলে ধরতে বিজেপির বীরভূম জেলা কমিটি দলের প্রাক্তন জেলা সাধারণ সম্পাদক কালোসোনা মণ্ডলকে তিন বছর ও দলের প্রাক্তন জেলা সম্পাদক দেবাশীষ ওরফে পলাশ মিত্রকে চার বছর দল থেকে বহিষ্কার করার কথা ঘোষণা করা হলো। মঙ্গলবার সিউড়িতে দলের জেলা সভাপতি শ্যামাপদ মণ্ডল সাংবাদিক সম্মেলন করে এই ঘোষণা করেন। এই সময় এরা দলের বিষয়ে কোনও কার্যক্রম নিলে তাদের বিরুদ্ধে দল আইনী ব্যবস্থা নেবে বলেও তিনি জানিয়েছেন। এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি জানান, এরা দীর্ঘদিন ধরেই দলবিরোধী কাজ করছিলেন। এমন কী, থানায় গিয়ে পুলিশের উপরে চাপ সৃষ্টি করার বিষয়টিও ছিল। দলীয় শৃঙ্খলা রক্ষা কমিটি এদের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগগুলি খতিয়ে দেখে তার সত্যতা পেয়ে তা রাজ্য কমিটিতে পাঠায়। সেখানেই এদের বহিষ্কার করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।
দলের বর্তমান জেলা সভাপতি শ্যামাপদ মণ্ডল এখনও পর্যন্ত তাদের প্রতিপক্ষ তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে সেইভাবে লড়াইয়ের ময়দান তৈরী করতে পারেননি। বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচনের সময় সিউড়িতে খোদ জেলা প্রশাসন ভবনের মধ্যেই প্রকাশ্য দিনের আলোয় তার পাছাতে ছুরি মারা হয়েছিল। তিনি বেশ কিছুদিন চিকিৎসাধীনও ছিলেন। কিন্তু লড়াইয়ের ময়দান ছেড়ে যাননি। এর আগেও বিজেপির আরেক ডাকাবুকো নেতা দুধকুমার মণ্ডলকেও দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছিল। পরে আবার দল তাকেই বিধানসভা নির্বাচনে রামপুরহাট কেন্দ্রে ও লোকসভা নির্বাচনে বীরভূম কেন্দ্রে প্রার্থী করে। তাই কালোসোনা মণ্ডলের বিরুদ্ধে আসন্ন বিধানসভা নির্বাচন পর্বের আগে, কোন সিদ্ধান্তে অবিচল থাকবে, তা অবশ্যই ভবিষ্যত বলবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *