বর্ধমান জেলা

পিকনিকে স্বাস্থ্যবিধি প্রচারে পল্লিমঙ্গল সমিতি

সেখ সামসুদ্দিন ,

মানুষের মধ্যে দেখা যাচ্ছে কোভিড নিয়ে সচেতনতার অভাব সর্বত্র, ১লা জানুয়ারী অনেকেই মহামারীর কথা ভুলে চড়ুইভাতিতে মজেছেন দামোদরের চরে, শারীরিক দূরত্ব তো দুরে থাক মাস্ক অবধি নেই কারুর মুখে। যদিও থার্মোকল রোধে কাজে এসেছে বিগত ৩ বছরের প্রচার, ১০০০ এর উপর মানুষের মধ্যে দেখা গেল মাত্র ৬০ জন থার্মোকলের পাতা ব্যবহার করছেন, তাদের থেকে থার্মোকলের পাতা নিয়ে দেওয়া হল শালপাতা, আর বাকি সবার জন্য বিলি করা হল মাস্ক, কোভিড সচেতনতা মূলক ইকো গ্রীটিংস সাথে স্যানেটাইজার। শুধু বিলি না ব্যবহারের উপর জোর দেওয়া হয় এদিন পল্লীমঙ্গল সমিতির তরফে, রীতিমত স্বেচ্ছাসেবক রেখে নজরদারী চালানো হয় দামোদরের চরে। বিভিন্ন জায়গা থেকে মানুষ পিকনিকে আসেন এখানে। গোষ্ঠী সংক্রমণ এড়াতে প্রতিটি পিকনিক পার্টিকে দড়ি দিয়ে নির্দিষ্ট জায়গা চিহ্নিত করে দেওয়া হয় যাতে সকলের সাথে মেলামেশায় রাশ টানা যায়; যদিও মানুষের সংখ্যার চাপে একসময় তা আর বজায় রাখা যায়নি !

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *