রাজনীতি

রায়পুরের ধানাড়া অঞ্চলে তৃণমূলের বঙ্গধ্বনি কর্মসূচি

সাধন মন্ডল ,

বঙ্গ ধনী যাত্রার অন্তিম লগ্নে জঙ্গলমহলের রাইপুর ব্লকের ধানাড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের ঠাকুরা বাধা গ্রামে পদযাত্রা ও পথসভা অনুষ্ঠিত হলো। এই পদযাত্রায় অংশগ্রহণ করেন বাঁকুড়া জেলা পরিষদের সভাধিপতি মৃত্যুঞ্জয় মুর্মু, রাইপুর বিধানসভার বিধায়ক বীরেন্দ্রনাথ টুডু,রাইপুর ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি জগবন্ধু মাহাত, জেলা তৃণমূল কংগ্রেস কমিটির সম্পাদক গৌতম বিশ্বাস, তারাশঙ্কর মহাপাত্র, বাঁকুড়া জেলা যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি রাজকুমার সিংহ, তৃণমূল নেতৃত্ব অরুণ মান্ডি, প্রমুখ। পথ সভার আগে একটি মিছিল সারা গ্রাম প্রদক্ষিণ করে ঠাকুরাবাধা গ্রামের বকুলতলায় সভামঞ্চে শেষ হয়। সেখানে বক্তব্য রাখেন সভাধিপতি মৃত্যুঞ্জয় মুর্মু তিনি চাঁছা ছোলা ভাষায় বিজেপি কে আক্রমণ করে মা মাটি মানুষের সরকার মমতাময়ী মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের উন্নয়নমুখী প্রকল্প গুলির কথা তুলে ধরেন। ভাওতাবাজি বিজেপিকে এলাকা থেকে উৎখাত করতে উপস্থিত তৃণমূল কর্মীদের কাছে আহ্বান জানান। বাঁকুড়া জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সম্পাদক গৌতম বিশ্বাস শুভেন্দু অধিকারী ও মুকুল রায় কে বিশ্বাসঘাতক বলেন বলে অভিহিত করে বলেন যার খেয়ে বড় হল তারেই বদনাম করছেন শুভেন্দু ও মুকুল রায়। ভাঁওতাবাজির সরকার মোদি সরকার। মোদি সরকার দেশটাকে বিক্রি করে দিতে চাইছে এই বিরুদ্ধে আমাদের রুখে দাঁড়াতে হবে।। বিধায়ক বীরেন্দ্রনাথ টুডু বলেন আগামী বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থীদের বিপুল ভোটে জয়যুক্ত করে তৃতীয় বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে নিয়ে আসতে হবে তাহলেই জঙ্গলমহলের উন্নয়ন অব্যাহত থাকবে। রাইপুর ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি জগবন্ধু মাহাত বলেন মায়ের গর্ভ থেকে শ্মশান যাত্রী পর্যন্ত সকলেই মা মাটি মানুষের সরকারের সুবিধা পাচ্ছেন। মমতায়ী মুখ্যমন্ত্রী 60 টিরও বেশি উন্নয়নমুখী প্রকল্প চালিয়ে যাচ্ছেন কেন্দ্রীয় সরকারের সমস্ত রকম অসহযোগিতা সত্ত্বেও। আজ কন্যাশ্রী সারা বিশ্বের কাছে সমাদৃত কন্যাশ্রী আজ বিশ্বশ্রী রূপ পেয়েছে, তাই মমতাময়ী মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে তৃতীয়বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী রূপে দেখতে চাই আমরা। এই শপথ আমাদের দিতে হবে। বাঁকুড়া জেলা তৃণমূলের যুব সভাপতি রাজকুমার সিংহ বলেন বিজেপি নামক একটি ভাঁওতাবাজির এলাকার মানুষকে বিভ্রান্ত করতে চাইছে তাদের বুঝিয়ে দিতে হবে বাংলারমাটি বিশ্বাসঘাতকদের জন্য নয় সৎ ও মমতাময়ী মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর জন্য। প্রত্যন্ত গ্রামের এই সভায় তৃণমূল কর্মীদের উপস্থিতি ছিল লক্ষণীয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *