সাহিত্য বার্তা

একান্তে তুমি

একান্তে তুমি,


ইন্দ্রিনী গুপ্ত,

যতই হয় রাত গভীর
চারদিক থমথমে নিথর, শান্ত নীড় ।
একাকী র্নিঘুম রাত
মিটিমিটি জোনাকীর সাথ,
রাতদুপুরে যে যার মত সবাই নি:সঙ্গ
চাঁদ তারাদের চলে রাতজুড়ে রঙ্গ ।
মাঝে মাঝে নিভে যায় চাঁদের উজ্জ্বল শিখা
আকাশটা ঢেকে দেয় অবাঞ্চিত কুহেলিকা ।
রাতের গভীরতা জানান দেয় দেয়াল ঘড়ির শব্দটা
নষ্ট কলের টিপ টিপ করে পানি পড়া বাড়িয়ে দেয় শঙ্কাটা ।
টিকটিক টিপটিপ শব্দগুলো যেন নি:শ্বাসের মতই উঠানামা করছে
একাকিত্বের এই প্রহরে কেমন নি:সঙ্গতায় গলা শুকিয়ে আসছে ।
আঁধার যতই হোক না গভীর,
যতই হই না ভয়ে অস্থির;
তুমি আছ মনে, পাশে , আর ভাবনাতে
বেশ কেটে যায় নিঝুম নির্ঘুম ঘুমের রাতে ।
বারান্দার গ্রীলে গিয়ে দাঁড়াই
জোছনা ধরার প্রয়াসে বিফল হাত বাড়াই ।
তোমাকে এক মুঠো জোছনা দেব আজ
পড়িয়ে দিব মাথায় তোমার, কেমন হবে এ সাজ ?
অথবা!!!!!!
চাঁদের নিচে ভেসে বেড়ানো সাদা মেঘের এক খন্ড
শুভ্রতা তোমার হাতে দেব, নেবে কি? স্বপ্নটা করো না লন্ডভন্ড!!
অথবা!!!!!
আকাশের নীহারিকা, কয়েকটি উজ্জ্বল তারা
তোমার ফতুয়ার বোতাম বানিয়ে দেব, দাওনা একটু সাড়া ।
সবই অর্থহীন স্বপ্ন, আঁধারের পাতাঝরার মতই
সঙ্গী শুধু নীরবতা, কথা কয়ে যাই তার সাথে কতই !!
ভুলে গেছ তুমি, দিয়েছ শুধুই অবসাদ
জীবন জুড়ে শুধুই যেন তেঁতোর স্বাদ ।
ধীরে ধীরে প্রভাতের আলো জ্বলে রাতের যবনিকায়
কাতর ক্রন্দন, সকল আশার কবর,
ছুঁই যেন বারবার আলেয়ার শিখায় ।

রাতের শীতের শীতল ছোঁয়ায় তুমি থেকো একান্তে সংগোপনে,মননে,সৃজনে,ভালো থেকো তুমি,,,মনের চিত্র পটে এলোমেলো স্মৃতি,নতুন সকালের অপেখ্যায় কাটে দিন,দিন কেটে রাত আসে,রাতের শেষে ভোরের অপেক্ষায়,সকলের আলাদা আলাদা জীবন ,আলাদা আলাদা গল্প,তবুও তুমি কথাটা সকলেরই একটা আলাদা অনুভূতি,বারান্দার দক্ষিণের হাওয়া, শীতের রোদ্দুর,বর্ষার বৃষ্টি,শরতের মেঘের মতন,হেমন্তের দীপাবলির মতন,বসন্তের প্রেমের হাওয়ার মতন,তাই এই তুমি সকলের জীবনে বেঁচে থাকুক নতুন ছন্দের মতন,এই একান্তে তুমির ওম ছড়িয়ে পড়ুক ভুবনডাঙ্গার মাঠে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *