রাজনীতি

পশ্চিম বর্ধমান জেলা তৃণমূলের সভাপতি পদে কে আসছেন?

আসানসোলএর প্রশাসক এবং তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সভাপতি পদ সম্পর্কে জল্পনা

কাজল মিত্র ,

:- আসানসোল জিতেন্দ্র তিওয়ারি তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সভাপতি ও কর্পোরেশন প্রশাসক পদ থেকে পদত্যাগ করার পরে, টিএমসি সূত্রের খবর অনুযায়ী পশ্চিম বর্ধমান তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সভাপতি এবং আসানসোল পৌর কর্পোরেশন কে হবেন তা নিয়ে জল্পনা-কল্পনা আরও তীব্র হয়ে উঠেছে। শনিবার সারা দিন জেলার প্রায় ‘গুরুত্বপূর্ণ’ নেতার নাম উঠে আসে। প্রশ্ন জিতেন্দ্র তিওয়ারি পুরান পদ পাবেন কি না। কিছু দলীয় কর্মীর মতে, জেলা সভাপতি হিসাবে মলয় ঘটক, ভি শিবদাসন, উজ্জ্বল চ্যাটার্জী, অপূর্ব মুখোপাধ্যায়, তাপস বন্দ্যোপাধ্যায়, হরেরাম সিংহের নাম রয়েছে। তবে কিছু নেতাকর্মীর মতে, এর আগেও মলয় ঘটকের অনুগামী দের সাথে অন্যান্য জেলা নেতাদের অনুসারীদের মধ্যে ঝগড়ার-অভিযোগ রয়েছে। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের একটি অংশের মতে, দুর্গাপুরে সাম্প্রতিক কাউন্সিলরদের সভা থেকে অপূর্ব মুখোপাধ্যায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ফোন পেয়েছিলেন, তবে তিনি কমপক্ষে চার বছর ধরে ‘প্রায় নিষ্ক্রিয়’ ছিলেন। এমনকি উজ্জ্বল চ্যাটার্জী জেলা সভাপতি থাকাকালীনও তাঁর কার্যক্রম কুলটি বিধানসভা কেন্দ্রের মধ্যে সীমাবদ্ধ ছিল। এছাড়াও, তাপস বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাংগঠনিক ক্ষমতা নিয়েও দলের মধ্যে প্রশ্ন রয়েছে। উজ্জ্বল চ্যাটার্জী এবং অমরনাথ চ্যাটার্জি কর্পোরেশন প্রশাসকের পদে আসতে পারেন কিনা তা নিয়ে জল্পনা চলছে। উজ্জ্বল চ্যাটার্জী কুলাটি পৌরসভার প্রাক্তন চেয়ারম্যান এবং বর্তমানে আসানসোল-দুর্গাপুর উন্নয়ন বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান। অন্যদিকে, অমরনাথ চ্যাটার্জী 26 বছর ধরে আসানসোল পৌরসভার একজন নির্বাচিত প্রতিনিধি। চেয়ারম্যান নিগমের উপ-চেয়ারম্যান ছিলেন চেয়ারম্যান। তবে কোনও নেতাই এই গুজব প্রকাশ্যে শুনতে চাননি। ভি শিবদাসন দাশু, উজ্জ্বল চ্যাটার্জী, অপূর্ব মুখোপাধ্যায় বলেছিলেন, “আমরা দিদিকে অনুসরণ করছি ।

 166 12,89,834

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *