রাজনীতি

মন্ত্রী মলয় ঘটক আমাদের অভিভাবক, বললেন নব জেলা সভাপতি

পার্থ রায়

টেক্কা দিয়ে এক এক গোষ্ঠীর সম্বর্ধনা। কোনো গোষ্ঠী চেয়ারম্যান কে সম্বর্ধনা তো অপর গোষ্ঠী জেলা সভাপতিকে সম্বর্ধনা দেওয়ার হিড়িক। তৃণমূলের দলের অন্দরেই দুই গোষ্ঠীই প্রমান করতে মরিয়া যিনি আমাদের সঙ্গে আছেন তিঁনিই শক্তিশালী। কার্যত রবিবারের বারবেলায় জেলা সভাপতি স্পষ্ট করে পশ্চিম বর্ধমান জেলার নব ঘোষিত চেয়ারম্যান রাজ্যের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী মলয় ঘটক কে পদের সম্মান দিয়ে জানিয়ে দিলেন, তিনিই আমাদের অবিভাবক। কার্যত গোষ্ঠী দ্বন্দ্বর কথা উড়িয়ে দিয়ে সকলে মিলে একুশের ভোটে জয় লাভ করাকেই পাখির চোখ করেছেন জেলা সভাপতি জিতেন্দ্র তেওয়ারি।
পূর্ননিযুক্ত পশ্চিম বর্ধমান জেলা সভাপতি জিতেন্দ্র তেওয়ারি এবং যুব জেলা সভাপতি রূপেশ যাদবকে রবিবার সম্বর্ধনা দিল দুর্গাপুর ১নাম্বার ব্লক তৃনমুল কংগ্রেস দুর্গাপুরের নেতাজী ভবনে।এইদিন আনুষ্ঠানিক ভাবে জেলা সভাপতি জিতেন্দ্র তিওয়ারি এবং যুব জেলা সভাপতি রূপেশ যাদবকে সম্বর্ধনা দেওয়া হয়।এইদিন উপস্থিত ছিলেন দুর্গাপুর নগর নিগমের মেয়র দিলীপ অগস্থি,জল দফতরের মেয়র পরিষদ পবিত্র চ্যাটার্জী, অন্যতম মেয়র পরিষদ সদস্য প্রভাত চ্যাটার্জী সহ দুর্গাপুরের কাউন্সিলর গন ও সহ তৃণমূলের বিশিষ্ট জনেরা।এইদিন জিতেন্দ্র তিওয়ারি জানান বিবাদ নয় বিকাশ চাই।সকলে মিলে একসাথে কাজ করতে হবে।মানুষের সম্যসা হলে তড়িঘড়ি পৌঁছে যেতে হবে তাঁদের কাছে ।২০২১এর নির্বাচনে জয়লাভ করতেই হবে আমাদের বলে তিনি জানান।শহরের বুকে আলাদা আলাদা তৃণমূলের সভা করা হচ্ছে এই প্রসঙ্গে জিতেন্দ্র তিওয়ারি জানান তাদের দলের কর্মী সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় আলাদা আলাদা অনুষ্ঠান হচ্ছে।কিন্তু কোনো বিবাদ নেই তাদের মধ্যে।তাদের জেলায় মন্ত্রী মলয় ঘটক অভিভাবকের ন্যায় কাজ করছেন তার নির্দেশে তাদের জেলায় দল এগিয়ে যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *