পুলিশ

তীরন্দাজিতে স্বর্ণপদক প্রাপ্ত বিজেপির সংখ্যালঘু নেত্রীর বাড়ির সামনে পড়লো চল্লিশটা বোমা

খায়রুল আনাম (সম্পাদক আয়না টেলি নিউজ)

 তীরন্দাজিতে স্বর্ণপদক প্রাপ্ত বিজেপি নেত্রীর বাড়িতে  বোমাবাজি
       
 বিধানসভা নির্বাচন  যতোই এগিয়ে আসছে, ততোই বাড়ছে রাজনৈতিক অস্থিরতা।  ময়ূরেশ্বরের বার গ্রামে শাসক দলের দলীয় কার্যালয়ে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা নিয়ে রাজনৈতিক বাকবিতণ্ডা  চলার মধ্যেই   এবার বিজেপির  বীরভূম জেলা বি-মণ্ডলের মহিলা মোর্চার সাধারণ সম্পাদিকা  আজিজা খাতুনের বাড়িতে বোমাবাজির অভিযোগকে কেন্দ্র করে তোলপাড় শুরু হয়ে গিয়েছে। ঘটনার জেরে বিজেপির বীরভূম জেলা সম্পাদক শ্যামাপদ মণ্ডল হুঁঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, হয় পুলিশ দোষীদের গ্রেফতার করুক অথবা, কিছু করতে পারবো না বলে মাথার উপরে হাত তুলে পুলিশ বসে পড়ুক। বাকী কাজটা জনগণই করে দেখিয়ে দেবে। ঘটনাটি ঘটেছে বীরভূমের লাভপুর থানার ঠিবা গ্রাম পঞ্চায়েতের  দত্তবগদৌড়া গ্রামে। শাসক তৃণমূল কংগ্রেসের লাভপুর অঞ্চল সভাপতি  কাজি সাহিন তাঁদের বিরুদ্ধে আনা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে জানিয়ে দিয়েছেন, এই ধরনের ঘটনার সঙ্গে তাঁদের কোনও যোগ নেই।        লাভপুরের  দত্তবগদৌড়া গ্রামের বিজেপি নেত্রী আজিজা খাতুনের রাজনৈতিক পরিচয় ছাড়াও তাঁর অন্যতম পরিচয় হলো,  তিনি রাজ্যস্তরের তীরন্দাজি প্রতিযোগিতায় স্বর্ণপদক প্রাপ্ত একজন  খেলোয়াড়। তাঁর বাড়িতে  বোমাবাজির ঘটনায় মিশ্র প্রতিক্রিয়াও তৈরী হয়েছে। আজিজা খাতুনের অভিযোগ, তিনি বিজেপিতে যোগ দেওয়ার  পর থেকেই শাসক দলের দিক থেকে তাঁকে নানাভাবে হুমকি দেওয়া শুরু হয়েছে।  বুধবার ১৬ ডিসেম্বর রাত্রে এলাকার বিদ্যুতের ট্রান্সফরমার বন্ধ করে দিয়ে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন  করে দেওয়া হয়। তারপরই অন্ধকারে তাঁদের পাকা বাড়ির দেওয়ালে ও দরজায় একের পর এক বোমাবাজি চলতে থাকে। প্রায়  পঁঁয়ত্রিশ থেকে চল্লিশটি বোমা মারা হয় বলে তাঁর মনে হয়েছে। বোমাবাজির পরে তৃণমূল কংগ্রেস আশ্রিত  দুষ্কৃতকারীরা অন্ধকারে চলে যায় বলে তাঁর অভিমত। লাভপুর পুলিশ  সমগ্র বিষয়টি খতিয়ে দেখছে বলে জানা গিয়েছে ।।  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *