প্রশাসন

মাইথন সহ বেশ কয়েক জায়গা পরিদর্শনে জেলাশাসক

সালানপুর ব্লকে মাইথন সহ বিভিন্ন স্থানে পরিদর্শন করলেন জেলা শাসক:-

কাজল মিত্র,

আর কদিন পরেই মাইথনে ড্যাম এ পিকনিক শুরু।তাই শনিবার দিন মাইথন পিকনিক স্পট পরিদর্শন করেন জেলা শাসক পূর্ণেন্দু মাজি সহ সালানপুর বিডিও অদিতি বসু,জেলার ডি পি এল ও বুদ্ধদেব পান,জেলা পরিষদ কর্মদক্ষ মহম্মদ আরমান।
এখানে এইসময়ে যথেষ্ট বেশি জল আছে দেখে তিনি ব্লক প্রশাসনকে নির্দেশ দেন যেহেতু কোভিডের সময় তাছাড়া ড্যাম্পে বেশি জল রয়েছে স্বাভাবিক ভাবেই প্রচুর সংখ্যক মানুষকে একসাথে যেন পিকনিক করতে প্রবেশ করতে দেওয়া না হয় তার ব্যবস্থা করতে হবে।এছাড়াও তিনি অন্যান্য বার পিকনিকের সময় যেসব নির্দেশ গুলি কার্যকরি থাকে সেগুলো যেন নিয়মের মধ্যে রাখা হয় তার নির্দেশদেন। যেমন কোনো পর্যটক যদি মাইথনে পিকনিক করতে আসে তাদের সাথে ডিজে,থার্মাকোল প্লাস্টিক এসব ব্যাবহার করা নিষিদ্ধ থাকবে।মাইথন পিকনিক স্পট নিয়মিত ভাবে আবর্জনা পরিষ্কারের ব্যবস্থা করতে হবে এই সব বিষয়ে বিশেষ নজর রাখতে হবে।
তাছাড়া এইদিন তিনি হিন্দুস্তান- কেবেলস রুপনারায়নপুর,সামডি এলাকায় বেশ কয়েকটি নির্বাচনী বুথে পরিদর্শন করেন বিএলও দের কাছে এইসব অঞ্চলের খোঁজ খবর করেন এবং যারা ভোটার হিসেবে এসেছেন তাদের সাথে সুবিধা অসুবিধা নিয়ে কথা বলেন।
এরপর তিনি এইদিন সামডি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নির্বাচনি বুথ সংলগ্ন স্কুল ময়দানে দেখেন বেশ কয়েকটি ছাত্র ক্রিকেট খেলছে সেখানে গিয়ে ছাত্রছাত্রীদের সঙ্গে কথা বলেন তাদের নিত্য পড়ার বাইরে গিয়ে সাধারণ জ্ঞান সম্পর্ক কয়েকটি প্রশ্ন করায় ওরা অত্যন্ত ভাল উত্তর দেয় তাছাড়া খেলাধুলা মিড ডে মিল নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেন।
তারপর তিনি সালানপুর এরিয়ার এক পরিত্যক্ত খোলামুখ খনিতে যান যেখানে শিব শংকর গোষ্ঠীর মৎস্য চাষের পরিদর্শন করেন। তিনি নিজে ওদের সাথে নৌকোয় করে ঘুরে দেখেন।এই সব মৎস্য চাষীরা ওনার কাছে আবেদন করেন এখানে কেজ চাষ করার সুবিধা দেয়া হোক।তাহলে এদের উৎপাদন বাড়বে।জেলাশাসক তাদের এই বিষয়টি নিয়ে আশ্বাস দেন এই বিষয়ে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়ার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *