রাজনীতি

ময়নাতদন্তের রিপোর্টে ভরসা নেই রাজ্য বিজেপির

সুরজ প্রসাদ,

পূর্বস্থলীর বিজেপি কর্মীর মৃতদেহ সোমবার বিকেলে বর্ধমান জেলা কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া যায়।সেখানে মৃতদেহে মাল্যদান করেন রাজ্য বিজেপি সহসভাপতি রাজু ব্যানার্জী।
মৃত বিজেপি কর্মীর নাম সুখদেব প্রামাণিক(৩৪)।মৃতের বাড়ি পূর্ব বর্ধমানের কালনার পূর্বস্থলীর নিমদহ পঞ্চায়েতের চাঁদপাড়া গ্রামে। তিনদিন আগে জামালপুরে বিজেপির এক দলীয় কর্মসূচিতে যোগ দেওয়ার পর থেকেই নিখোঁজ ছিলেন ওই যুবক।রবিবার বাড়ির কাছেই নিমিখাঁর পুকুরে তার দেহ ভাসতে দেখেন স্থানীয় বাসিন্দারা । এর পরই চাঞ্চল্য ছড়ায় ওই এলাকায়।মৃতের পরিবারের দাবি তাঁকে খুন করে ফেলে দেওয়া হয়েছে।এরপর বিজেপি কর্মীরা জামালপুর ছাতনিতে কালনা কাটোয়া রোড অবরোধ করে।

এদিন খুনিদের গ্রেপ্তার ও সঠিক তদন্তের দাবীতে সকাল থেকেই শুরু হয় পথ অবরোধ। কালনা মহকুমা জুড়ে টায়ার জ্বালিয়ে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায় বিজেপি কর্মী সমর্থকরা।অবরোধ ও বিক্ষোভের জেরে কালনা মহকুমা জুড়ে কয়েক ঘন্টা ধরে থমকে যায় যান চলাচল ।

এদিন সকালে মৃত বিজেপি কর্মী শুকদেব প্রামাণিকের বাড়িতে তার মা বাবার সঙ্গে দেখা করেন বিজেপি নেতা রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়।মৃতের পরিবারের পাশে থাকার আশ্বাস দেন তিনি।এরপর তিনিও পথ অবরোধে সামিল হন।
অন্যদিকে দোষীরা গ্রেপ্তার না হলে জঙ্গী আন্দোলনের হুমকি দেয় কালনার স্থানীয় বিজেপি নেতা ধনঞ্জয় হালদার।
বিকেলে বর্ধমানের ঘোড়দৌড় চটির জেলা বিজেপি কার্যালয়ে মৃতদেহ নিয়ে যাওয়া হয়।সকাল থেকেই বর্ধমান মেডিকেল কলেজের পুলিশ মর্গে হাজির ছিলেন বিজেপি কর্মী সমর্থকরা।দুপুরে মৃতদেহের সুরতহাল হওয়ার পর বিকেলে শবদেহবাহী শকট পৌঁছায় দলীয় কার্যালয়ে। সেখানে উপস্থিত ছিলেন রাজু ব্যানার্জী।তিনি বলেন ময়নাতদন্তের উপর কোন ভরসা নেই।কারণ ময়নাতদন্তের আগেই বলে দেওয়া হচ্ছে জলে ডুবে মারা গেছে। কখনো মুখমন্ত্রী বলছেন, কখনো কমিশনার বলছেন।সুতরাং ডাক্তারদের প্রভাবিত করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *