সাহিত্য বার্তা

কৃষক আমার ভাই

কৃষক আমার ভাই,
ইন্দ্রানী গুপ্ত,

তুমি এমন একজন লোক
যার কষ্টের ফসল
অন্য জনে করে ভোগ
যারা করে ভোগ,
তারা কি তাদের সুখ
তোমার সাথে করে যোগ?

সুখ বলে কি কিছু রয়েছে?
তোমার জীবনের পাশে
তুমি শত কষ্টকে গ্রহণ করো হেঁসে
তাই বলেও তুমি কি
সুখ খুজে পাও জীবনের শেষে।

শীতের সকালে,
ধনীরা ঘুমিয়ে থাকে বিছানার কোলে।
হাতগুলো তোমার ঠান্ডায় কাঁপে
কারণ তোমার তো জানা ফসলে
শ্রম দিতে হয় ধাপে ধাপে।

গ্রীষ্মের দুপুরে,
সবপ্রাণী ছায়ায় থাকে পড়ে
তুমি সেই কৃষক,
যে যাইতে পারে না ছায়ার ধারে
যেতে হবে যে তোমায়
ফসলের কাছে বারে বারে,
তোমার তো জানা,
সময়ের শ্রম সময়ে না দিলে
উঠবে না ফসল ঘরে।

কৃষক,
তুমি এমন একটা গোষ্ঠী
ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র শ্রমের বিনিময়ে কর
দেশের উন্নয়নের সৃষ্টি
তোমার কাছেই তো
বন্ধু মানবতার দৃষ্টি।

তুমি যে ভাই কৃষক,
তবু এই কৃষকের যোগানেতে
নাই তোমাদেরই হক।
বিলেতি ভাষা বোঝো না যে ভাই
খাঁটি বাংলা ভাষা খোঁজো
দালানকোঠা নেই কো তোদের
আছে শুধু ভুঁই টুকু যে
স্বপ্ন নেইতো রাজপ্রাসাদের
দু মুঠো চাও অন্ন,
আবার সবার মুখে অন্ন জোটে
এই কৃষকের জন্য।
গাড়ী ঘোড়া নেইকো তোদের
তুমি যে ভাই গরীব,
তবু সবার ঘরে বিজলী জ্বলে
তোমার ঘরে প্রদীপ।
শুধু এই কৃষকের জন্য যে আজ
সবুজ বসুন্ধরা,
এই কৃষকের মুখের হাসি
সরলতায় ভরা ।
প্রকৃতির বুকে এখন ফসলের সমারোহ। কৃষক ধান কেটে মাঠেই রেখে দিয়েছে। ধীরে ধীরে খামারে নিয়ে যাবে তার পরিশ্রমের সোনালি ফসল। অন্য খেত সব্জির রঙে সবুজ। চারদিকে হালকা কুয়াশা। ঝাঁকড়া গাছগুলির মাথায় আর একটু জমাট। মাঝে মাঝে খেতের বুক থেকে উড়ে যাচ্ছে টিয়া পাখির ঝাঁক। তাল গাছের সারির মধ্যে দিয়ে মাটির রাস্তা। তাতে গ্রামের লোকের আনাগোনা। মহিষের গাড়ি নিয়ে খেতের পথে চলেছে চাষি। ফসল তুলতে হবে খামারে। এক দিকে যখন এমন দৃশ্য, অন্য দিকে প্রবল ঠাণ্ডায় দিল্লির পথে বসে আছেন পঞ্জাব-হরিয়ানার সঙ্ঘবদ্ধ কৃষকরা। কৃষকের স্বার্থ বিরোধী কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে এই আন্দোলনে এখনও পূর্ব ভারতের কৃষকরা যোগ না দিলেও মনে মনে তারা আন্দোলনকারীদের পাশেই। থাকতে হবে আমাদেরও। কারণ কৃষকই অন্নদাতা। জানি না আমার দিন আমাকে কী ফসল দেবে আজ। কী তুলব মনের ঘরে দিনের শেষে। তবু দিনের শুরু আশা জাগায়। কৃষকের মুখে হাসি উজ্জ্বল হোক, এই কামনায় বলি কৃষকের হাসি ফুটুক ভোরের আলোয় ভুবনডাঙ্গার মাঠে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *