বর্ধমান জেলা

এবার বর্ধমানে প্রকাশ্য কর্মসূচিতে ‘দাদার অনুগামীরা’

সুরজ প্রসাদ ,

এবার দাদার অনুগামীরা পথে নামলেন।এলেন একেবারে প্রকাশ্যে।রবিবার পূর্ব বর্ধমানের রসুলপুর বাজারে কয়েকজন যুবক দাদার অনুগামী লেখা ও শুভেন্দু অধিকারীর ছবি দেওয়া গেঞ্জি পড়ে মাস্ক ও হ্যাণ্ডসানিটাইজার বিলি করেন।তাঁরা বলেন দাদা অর্থাৎ শুভেন্দু অধিকারীর নির্দেশেই এই মাস্ক বিলি করা হচ্ছে। দাদার অনুগামী সুজন সর্দার বলেন দাদা যা বলবেন বা করবেন তাঁরা সেই পথেই হাঁটবেন। দাদা বিজেপিতে গেলে তাঁরাও বিজেপিতে যাবেন।
লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি ১৮ টি সিট পাবার পর ভয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের নেতারা সবাই ঘরে ঢুকে গিয়েছিল। বিভিন্ন জায়গায় পার্টি অফিসে ভাঙচুর, কর্মীদের হুমকি, মারধর করা হচ্ছিল। তখন কলকাতার কোন নেতাকে মাঠে ময়দানে নামতে দেখা যায় নি।একমাত্র শুভেন্দু অধিকারী মাঠে ছিলেন।ছিলেন কর্মীদের পাশে।

এখানে উল্লেখ্য গত এক মাস ধরে জেলার কাটোয়া, মেমারি, জামালপুর,আউশগ্রাম ও বর্ধমান শহরে দাদার অনুগামী লেখা পোস্টার দেওয়া হচ্ছিল। কিন্তু কেউ এতদিন প্রকাশ্যে আসে নি দাদার অনুগামী হিসেবে। গতকালই বর্ধমানের বিভিন্ন জায়গায় দাদার অনুগামী লেখা পোস্টার পড়ে।
শাসকদলের নেতারা বলছিলেন এসব বিজেপির কাজ।তারা চক্রান্ত করে এসব করছে।
এই বিষয়ে বিজেপি জেলা যুবমোর্চা সভাপতি শুভম নিয়োগী বলেন এতদিন যে তৃণমূল কংগ্রেসের নেতারা বিজেপির উপর চাপাচ্ছিল। পোস্টার বিজেপি দিচ্ছে। এখন কি তা প্রমাণ হয়ে গেল।শুভেন্দু অধিকারী জননেতা তাঁর অনুগামীরা পোস্টার দিচ্ছে। আসলে তৃণমূল কংগ্রেসের ভাঙন শুরু হয়েগেছে।তবে জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র প্রসেনজিৎ দাস বলেন এসব বিজেপির চক্রান্ত। তাঁরাই এজেন্সি দিয়ে এসব করাচ্ছে। এখানে কেউ দাদা নয় সবাই দিদির অনুগামী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *