ক্রীড়া সংস্কৃতি

ইসালে সওয়াব হলো উলুবেড়িয়ায়

ওয়াসিম বারি,

ইসলাম ধর্ম সন্ত্রাসবাদের বিরোধী ।প্রকৃত মুসলমানরা সন্ত্রাসবাদী হতে পারে না – মৌলানা আলি আসগর ।
বিয়েতে পন নেওয়া ইসলাম ধর্মে নিষিদ্ধ (হারাম ) ।হারাম নেওয়া থেকে বিরত থাকুন–ইদ্রিশ আলি ।

 হাওড়া জেলার উলুবেড়িয়া পূর্ব বিধানসভা কেন্দ্রের, উলুবেড়িয়া পারিজাত দক্ষিণপাড়া জুনিয়ার যুবক কমিটির আয়োজিত এক বিশাল ইসালে সওয়াবের অনুষ্টানে উপরিউক্ত কথাগুলো বলেন, প্রধান বক্তা মৌলানা সৈয়েদ আলি আসগর এবং উলুবেড়িয়া পূর্ব বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক ইদ্রিশ আলি।

মেদিনীপুরের মৌলানা জনাব সৈয়েদ আলি আসগর, কোরান হাদিসের ব্যাখ্যা করে শ্রোতাদের বোঝান, কেউ কোন খারাপ কাজেলিপ্ত হবেন না ।কোরান হাদিসের উদ্ধে’ কেউ নন, এটা মনে রাখবেন ।তিনি বহু তথ্য দিয়ে ইসলাম ধর্মের বিভিন্ন দিক ব্যাখা করেন , এবং সকল শ্রোতাই তাঁর বক্তব্যে মুগ্ধ হন ।
উলুবেড়িয়া পূর্ব বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক ইদ্রিশ আলি বলেন, ইসলাম ধর্মে পন নেওয়া এবং দেওয়া দুটোই হারাম (নিষিদ্ধ )তাই পন দেওয়া ও নেওয়া থেকে সকলে বিরত থাকুন হন ।বিধায়ক ইদ্রিশ আলি আরও বলেন, যদিও অনেক ইমানদার মুসলমান পন নেওয়া বা হারাম নেওয়া বন্ধ করেছেন, কিন্তু অনেকে আবার ছেলের বিয়েতে গরু ছাগল কেনাবেচার মত কেনাবেচা করছেন অথা’ৎ টাকা নিচ্ছেন ।তিনি আরও বলেন পয়গম্বর হজরত মুহাম্মদ (সাঃ)শুধু মুসলমানদের জন্য আসেননি তিনি সকলের জন্য এসেছিলেন তাই তাঁকে বিশ্বনবী বলা হয় ।বিধায়ক ইদ্রিশ আলি আরও বলেন, ধর্মে ধমে’ বিভেদ নয়, ধর্মে ধমে’ সমন্বয় গড়ে তুলুন, প্রতিবেশীকে ভালোবাসুন ।
অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, উলুবেড়িয়া পারিজাত রোড মসজিদের পেশ ইমাম মৌলানা তৈহিদ, মৌলানা আব্দুল রফিক, অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সমাজসেবী সাবির আলি মোল্লা, , সমাজসেবী ফরিদুল মল্লিক ওরফে সাহেব সহ কমিটির সদস্যরা।প্রচুর মানুষের সমাগম হয় ।এই ধম’ সভাটি অনুষ্টিত হয় 5ই ডিসেম্বর শনিবার রাতে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *