শাসকদলের আভ্যন্তরীণ বিবাদে ক্ষুব্দ গলসি

রাজনীতি

সেখ নিজাম আলম

গলসি থানার পুরসা গ্রামে আজ তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে বোমাবাজি হয়। তৃণমূল পার্টি অফিস থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষের বাড়ীতেও বোমা পড়ে। লাঠি,টাঙি,তরোয়াল প্রভৃতি নিয়ে ছোটাছুটি করলে আতঙ্কিত হয়ে পড়ে পুরসা গ্রামের সাধারণ মানুষ। পরে গলসি থানার পুলিশ এসে গ্রামের নিরীহ মানুষদেরকে মারধোর করে ধরে নিয়ে যায়। তারমধ্যে কেউ গৃহশিক্ষক, কেউ বা রোগী। এই ঘটনায় গ্রামের মানুষ তৃনমূল পার্টির প্রতি গর্জে ওঠেন। এটা প্রথম নয়, এর আগেও তৃনমূল পার্টি অফিস ভাঙচুর করেছে নিজেদের দলের লোকরাই। বোমার আঘাতে মহিলারাও আঘাত পেয়েছেন।নিরীহ ৩০ জনকে আজ ধরে নিয়ে যাওয়ায় ক্ষুব্ধ গ্রামবাসী। তাদের বক্তব্য দলের নেতারা নিজের স্বার্থে ঝামেলা তৈরি করবে আর গ্রামের নিরীহ মানুষরা তার শাস্তি পাবে, এটা মেনে নেওয়া যায় না। গ্রামে পুলিশ ঘুরে বেড়াচ্ছে। রোজার সময় ঘর ছেড়ে বাইরে পালাচ্ছেন বেশ কয়েকজন। তার উপর লক ডাউনে মানুষ আধ হাত বসে গেছে। তাই গ্রামের বুদ্ধিজীবী মানুষের বক্তব্য শাস্তি পেতে হলে তৃনমূল নেতারা শাস্তি পান। সাধারন নিরীহ মানুষ কেন? শান্ত গ্রামকে যারা অশান্ত করার চেষ্টা করছে, তাদের উপর গ্রামের মানুস গর্জে উঠবে বা আন্দোলন হবে বলে গোপন সূত্রে জানা গেছে।

যদিও শাসক দলের তরফে সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.