পুলিশ

পরিচারিকার দেহ পড়ে আছে স্বামী কে জানালো ম্যানেজার

কমল বড়া,

মন্তেশ্বরের ব্লকের বাঘাশন পঞ্চায়েতের ঘোড়াডাঙ্গা গ্ৰামের এলাকায় এক বধূর বিবস্ত্র দেহ উদ্ধারকে ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল. সন্ধ্যায় পুতুল হাজরা নামে এক গৃহবধূর দেহ উদ্ধার হয় ওই এলাকায়, বর্তমানে বর্ধমানের বাসিন্দা সোনা রায়ের মন্তেশ্বরের ঘোড়াডাঙার বাড়ি তে পরিচারিকার কাজ করত পুতুল হাজরা. সেই বাড়িটিই ম্যানেজার হিসাবে কর্মরত ছিলেন তপন হাজরা নামে এক ব্যক্তি. পরিবার সূত্রে জানা যায় ম্যানেজারের সঙ্গে ওই গৃহবধূর সম্পর্ক ছিল,গতকাল সন্ধ্যায় তপন হাজরা ওই গৃহবধূর স্বামীকে ফোন করে খবর দেয় তার স্ত্রীর দেহ পড়ে রয়েছে সোনা রায়ের বাড়ির সামনে, ওই গৃহবধূর স্বামী পৌঁছাতেই এলাকা ছেড়ে চম্পট দেয় ম্যানেজার তপন হাজরা. পুলিশের প্রাথমিক অনুমান ধর্ষণ করে ওই গৃহবধূকে খুন করা হয়েছে. তারপরই দেহ বাড়ির বাইরে ফেলে দেওয়া হয়েছে. ঘটনার তদন্তে নেমেছে মন্তেশ্বর থানার পুলিশ. কী কারণে খুন তা বুঝে উঠতে পারছেন না মৃতের পরিবারের লোকেরা.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *