২০ ফেব্রুয়ারী নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে ভারত সেবাশ্রম সংঘের ১২৫ বর্ষপূর্তিতে থাকবেন মুখ্যমন্ত্রী

প্রশাসন

ভারত সেবাশ্রম সংঘের প্রতিষ্ঠাতার ১২৫ বছর পালন সহ গঙ্গাসাগর মেলায় নানান কর্মসূচি

রাজকুমার দাস


সংঘের প্রতিষ্ঠাতা স্বামী প্রণবানন্দ মহারাজ বলেছিলেন এ যুগ মহা জাগরণের যুগ,এ যুগ মহা মিলনের যুগ,এ যুগ মহা মুক্তির যুগ। সেই মহান সমাজ সংস্কারক ও ভারত সেবাশ্রম সংঘের প্রতিষ্ঠাতা যুগাচার্য  স্বামী প্রণবানন্দ মহারাজের জন্মের ১২৫ তম বছর শুরু হচ্ছে ২০২০ সালে।
তীর্থ সংস্কার , জাতি গঠন , মানুষের মধ্যে  সৌভ্রাতৃত্ব বোধ গড়ে তোলা এবং আর্ত ও পীড়িত মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে ধর্মচক্র ও কর্মচক্রের প্রবর্তন করে যে বিরাট সামাজিক পরিবর্তন এনেছিলেন স্বামীজীর সেইসব কর্মকান্ড তুলে ধরতেই দীর্ঘ এক বছর ধরে সারা বিশ্বব্যাপী নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে সংঘের পক্ষ থেকে।
কলকাতায় বালিগঞ্জে ভারত সেবাশ্রম সংঘের প্রধান কার্যালয়ে এ উপলক্ষে আজ ২৭শে ডিসেম্বর এক সাংবাদিক সম্মেলনে সংঘের প্রধান সম্পাদক স্বামী বিশ্বাত্মানন্দ মহারাজ জানান, আগামী বছর ২০২০সালের ২রা জানুয়ারি বেহালার শখের বাজারে চন্ডী মেলা প্রাঙ্গণে প্রণব মেলার মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু  হবে । এরপর ২০শে ফেব্রুয়ারি কলকাতার নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে ১২৫ বছর পূর্তির আনুষ্ঠানিক সূচনা করবেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
স্বামী বিশ্বাত্মানন্দ মহারাজ জানান, কলকাতা, বোলপুর বর্ধমান দুর্গাপুর ডায়মন্ড হারবার সহ এ রাজ্যের বিভিন্ন আশ্রমে দীর্ঘ কয়েক মাস ব্যাপী আধ্যাত্ম চেতনা শিবির, যোগাসন, প্রাণায়াম, যুব সম্মেলন, স্বেচ্ছাসেবক সম্মেলন, শিক্ষক, কবি সাহিত্যিক ও সন্ন্যাসীদের নিয়ে নানা সম্মেলন, স্বনির্ভর কর্মপদ্ধতি শিবির, স্বচ্ছ ভারত, নির্মল বাংলা, বৃক্ষরোপণ  সহ নানা কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে ।
স্বামী প্রণবানন্দ মহারাজ জন্মেছিলেন ১৮৯৬ সালে মাঘী পূর্ণিমা তিথিতে বাংলাদেশের বাজিতপুর গ্রামে। সেই উপলক্ষে আগামী ১২ই মার্চ থেকে ১৯মার্চ পর্যন্ত বাজিতপুর মঠ দর্শন ও খুলনা ভারত সেবাশ্রম সংঘের শতবর্ষ উপলক্ষে বাজিতপুর, মাদারীপুর, শ্রীরামকাঠী, খুলনা, আশাগুনি সহ বাংলাদেশের বিভিন্ন আশ্রমে নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে ।এর পাশাপাশি জামশেদপুর  রায়পুর সহ ভারতবর্ষের বিভিন্ন রাজ্যে ও আমেরিকা, ইংল্যান্ড, গায়না, ফিজি থ্রি ত্রিনিদাদ, নিউ জার্সি , কানাডা, ওনটারিও সহ বিদেশের আশ্রম গুলিতেও বর্ষব্যাপী চলবে নানা অনুষ্ঠান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.