গৃহবধূ কে ধর্ষণের চেষ্টা ও খুনের অভিযোগে যাবৎজীবন জেল সিউড়িতে

পুলিশ

গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টা ও খুনের অভিযোগে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড অভিযুক্তের

কৌশিক গাঙ্গুলি , বীরভূম:- 2012 সালে 19 এ অক্টোবর সাঁইথিয়া থানার অন্তর্গত কোনাইপুর গ্রামে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টা করা ও পরে তাকে খুন করার অপরাধে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের নির্দেশ আদালতের।

অভিযোগ সুব্রত ঘোষ নামে ওই অভিযুক্ত সেদিন রাত্রে আনুমানিক দশটা নাগাদ ভূতনাথ টুডুর বাড়িতে গিয়ে উপস্থিত হয় এবং ভূতনাথ টুডু স্ত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। সে সময় ভূতনাথ বাবু বাড়িতে চলে আসায় বাধা দেয় অভিযুক্ত সুব্রত ঘোষকে। বাধা দেওয়ার সাথে সাথেই ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাথাড়ি কোপাতে থাকে ভূতনাথ টুডুকে। কোনোক্রমে সেখান থেকে পালিয়ে বাঁচে সে, উনার স্ত্রী সুব্রত ঘোষ এর হাত থেকে বাঁচার জন্য প্রাণপণ চিৎকার করে। তখন তাকে কুপিয়ে খুন করে সুব্রত ঘোষ।

এরপর সাঁইথিয়া থানার পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। 2012 সাল থেকে চলছিল বিচারপ্রক্রিয়া। গত 21 তারিখ দোষী সাব্যস্ত হয় সে, মঙ্গলবার তার সাজা ঘোষণা হল সিউড়ি আদালতে।

সরকারি আইনজীবী তপন কুমার গোস্বামী জানান ভারতীয় দণ্ডবিধিতে রাতের অন্ধকারে বাড়িতে মারাত্মক অস্ত্র নিয়ে ঢোকা ও মারধরের জন্য 10 বছরের কারাদণ্ড ও 4 হাজার টাকা জরিমানা। এছাড়াও ভারতীয় দণ্ডবিধির 324 ধারা তে তিন বছরের সাজা ও 2 হাজার টাকা জরিমানা। পাশাপাশি 307 ধারা অনুযায়ী 10 বছরের সাজা ও 4 হাজার টাকা জরিমানা। এছাড়াও 302 ধারা অনুযায়ী যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের নির্দেশ দেন বিচারক এবং মৃত স্বামীকে ডিএলএস থেকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথাও বলেছেন বিচারক।

Leave a Reply

Your email address will not be published.