রামনগরে কৃষি সমবায় ভবন উদঘাটন

প্রশাসন

জুলফিকার আলি

পূর্ব মেদিনীপুর ঃ রামনগর ঃ গ্রামীণ অর্থনীতির মূল ভিত্তি হল সমবায়।সাধারণ – মধ্যবিত্ত শ্রেণির মানুষের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ঘটায় সমবায়।তাই সমবায় সমিতিতে মানুষের অর্থনৈতিক সুরক্ষা থাকে।রবিবার রামনগর-১ ব্লকের খোলাবেড়্যা সমবায় কৃষি উন্নয়ন সমিতির নবনির্মিত দ্বি- তল ভবনের দ্বারোদঘাটন অনুষ্ঠানে এসে বললেন বলাগেড়িয়া সেন্ট্রাল কো- অপারেটিভ ব্যাঙ্কের চেয়ারম্যান তথা এগরার বিধায়ক সমরেশ দাস।তিনি বলেন, “সমবায়ে কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কের মতো সুযোগ- সুবিধা রয়েছে।তাই আপনারা সমবায়ে লেনদেন করুণ।” তাঁর অভিযোগ, “নোটবন্দি, জিএসটি চালু করে কেন্দ্রীয় সরকার দেশের অর্থনৈতিক দুরবস্থা ঘটিয়েছে।নীরব মোদী, বিজয় মালিয়ারা ব্যাঙ্ক থেকে কোটি কোটি টাকা লুঠ করে বিদেশে পালিয়েছে।তাই বর্তমান দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা খুবই শোচনীয়।দ্রব্যমূল্য আকাশছোঁয়া।সাধারণ- মধ্যবিত্ত মানুষের নাভিশ্বাস উঠেছে।” খোলাবেড়্যা সমবায় কৃষি উন্নয়ন সমিতির সম্পাদক কেদার নাথ গিরি বলেন, “সমিতির প্রধান কার্য্যালয়ে নবনির্মিত দ্বি- তল ভবনের দ্বারোদঘাটন করা হয়েছে।পুরোপুরিভাবে শীততাপ নিয়ন্ত্রিত কক্ষ।এখানে সেভিংস একাউন্ট, রেকারিং ডিপোজিট, ফিক্সড ডিপোজিট- সবকিছুই ব্যবস্থা রয়েছে।” অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রামনগরের বিধায়ক অখিল গিরি, রামনগর-১ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি শম্পা মহাপাত্র, সহ-সহ-সভাপতি নিতাই চরণ সার, রামনগরের ওসি স্বপন গোস্বামী, ব্লকের কর্মাধ্যক্ষ মদনমোহন গিরি, হলদিয়া-১ গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান প্রণতি প্রধান, সমিতির সভাপতি দেবাশিষ পন্ডা, ম্যানেজার নারায়ণ চন্দ্র মাইতি, সাদী হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক অশোক কুমার মন্ডল প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.