এনআরসি নিয়ে কনভেনশন আওয়াজের

রাজনীতি

জুলফিকার আলি

অাওয়াজ সংগঠনের দেশপ্রাণ ব্লক কমিটির অাহ্বানে অাযোধ্যাপুরের একটি বেসরকারী সভাগৃহে এনপিঅার,এনসিঅার,সিএএ বিরোধী এক গনকনভেনশন অায়োজিত হয়।কনভেনশনে সভাপতিত্ব করেন বিশিষ্ট সমাজসেবী সেক নুরুল অালি।ব্ক্তব্য রাখেন সংগঠনের জেলা সম্পাদক মামুদ হোসেন,প্রবীর বেরা,সেক সফিউল অালি,সুতনু মাইতি,সেক অারশাদ অালি প্রমুখ।জেলা সম্পাদক মামুদ হোসেন বলেন এনঅারসি, সিএএ কে নিয়ে সারাদেশ জুড়ে ব্যাপক বিক্ষোভ- অান্দোলনের মধ্যেই কেন্দ্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক মন্ত্রীসভা কে ৩৯৪২ কোটি টাকা চেয়েছে- এনপিঅার অাপডেট করার জন্য।এই এনপিঅার হল ন্যাশনাল পপুলেশন রেজিস্টার। এই এনপিঅার অাগেও হয়েছে।কিন্তু এই এনপিঅার সম্পূর্ন ভিন্ন প্রকৃতির।এনপিঅার- এর প্রশ্নাবলীও পাল্টে গেছে।এবারের এনপিঅারে বাবা-মায়ের জন্মস্হান ও জন্মের তারিখ,শেষ থাকার জায়গা,পাসপোর্ট নম্বর, অাধার নম্বর,ভোটার অাইডি নম্বর ইত্যাদি চাওয়া হচ্ছে।মামুদ হোসেন অারো বলেন নাগরিকত্ব সংশোধনী অাইন -2oo4সেকশন I4/A অনুযায়ী ভারতের প্রতিটি নাগরিকের জন্য এনঅার সি বাধত্যামূলক। এনঅারসি-র প্রথম ধাপ এনপিঅার ও বাধ্যতামূলক। সুতরাং এনঅারসি অাটকাতে গেলে এনপিঅার অাটকাতেই হবে।রাজ্যসরকার এনপিএ তে স্টে দিযেছে, বাতিল করেনি । পাশাপাশি লোকাসভা ও রাজ্যসভার দশের বেশী সাংসদ সিএএ পাশে অনুপস্হিত থেকে কেন্দ্রীয়সরকার কে সহায়তা করেছেন।রাজ্যসরকার দ্বিচারিতার ভূমিকা পালন করতে ব্যস্ত।এমতাবস্হায় কেন্দ্রীয় সরকার এনঅারসি ও সিএএ নিয়ে বিভ্রান্তিজনক প্রচার করে এনপিঅার করিয়ে নেওয়ার ফাঁদ পাতছে।সর্বস্তরের মানুষকে এক্যবদ্ধ হয়ে শান্তিপূর্ন ও ধর্মনিরপেক্ষভাবে প্রতিহত করার অাহ্বান জানান মামুদ হোসেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.