কাটোয়া কলেজ কর্মীর খুনের দায়ে যাবৎজীবন

পুলিশ

মোল্লা জসিমউদ্দিন

বৃহস্পতিবার বেলা তিনটে নাগাদ কাটোয়া মহকুমা আদালতে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা বিচারক সন্দীপ চৌধুরীর এজলাসে এক খুনের মামলায় দোষী সাব্যস্ত ব্যক্তির যাবৎজীবন কারাগারের রায়দান ঘটে। ৩০২ এবং ৩২৮ ধারায় ১৭ জন সাক্ষ্যির সাক্ষ্যদানে এই মামলাটির রায়দান ঘটে বলে জানান সরকার পক্ষের আইনজীবী তাপস কুমার মুখোপাধ্যায়। আসামি দীপঙ্কর ঘোষের আইনজীবী অবশ্য এই রায়ের বিরুদ্ধে তিনমাসের মধ্যে উচ্চ আদালতে আপিল করবেন বলে জানিয়েছেন। এদিন বিচারক তাঁর রায়ে যাবৎজীবনের পাশাপাশি ১০ হাজারের আর্থিক জরিমানা অনাদায়ে অতিরিক্ত এক বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন। ২০০৫ সালে ৬ ডিসেম্বর রাতে  কাটোয়ার ছোট কুলগাছি গ্রামে পরাণ ঘোষ এক প্রতিবেশী তথা কাটোয়া কলেজের কর্মচারী দীপঙ্কর ঘোষ এর হাতে ধারালো অস্ত্রে খুন হন। নিহতের স্ত্রী ঘটনার পরের দিন কাটোয়া থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।  বৃহস্পতিবার বেলা তিনটে নাগাদ কাটোয়া মহকুমা আদালতে অতিরিক্ত।জেলা।ও দায়রা বিচারক সন্দীপ চৌধুরী আসামি দীপঙ্কর ঘোষের যাবৎজীবন জেল এবং দশ হাজারের আর্থিক জরিমানা অনাদায়ে অতিরিক্ত এক বছরের সশ্রম কারাদণ্ড রায়দান দেন। আজ অর্থাৎ শুক্রবার একই এজলাসে আরও একটি খুনের মামলায় রায়দান ঘটতে পারে বলে আদালত সুত্রে প্রকাশ।                                                                                        

Leave a Reply

Your email address will not be published.