ভরাডুবি এড়াতে তৃনমূলের নেতা মন্ত্রীরা উৎসবে কাছের এবং কাজের মানুষ হচ্ছেন

রাজনীতি

ভরাডুবি ঠেকাতে তৃণমূলের জনসংযোগ বাড়াতে জোর বিভিন্ন উৎসবেও

শ্যামল রায়



লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল এর পরিপ্রেক্ষিতে ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া তৃণমূল কংগ্রেস। তাই কালনা কাটোয়া মহকুমা জুড়ে তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা নেত্রী কর্মী-সমর্থকরাও ভোট বাড়ানোর জন্য সমস্ত রকম উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। সরকারি প্রকল্প থেকে শুরু করে মানুষের সাথে আরো কি করে বেশি বেশি করে জনসংযোগ বানানো যায় তার উপরেও গুরুত্ব আরোপ করা হয়েছে দলের তরফ থেকে।
কালনা মহকুমার পূর্বস্থলী এক নম্বর পঞ্চায়েত সমিতি এলাকায় তৃণমূলের ফলাফল যথেষ্ট ভালো তবুও এখানকার বিধায়ক তথা প্রাণিসম্পদ দপ্তরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ তিনি প্রতিনিয়ত মানুষের সাথে সংযোগ স্থাপন করেন এবং বিভিন্ন ধরনের উৎসব অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে সকলের অংশগ্রহণ করিয়ে থাকছেন। উন্নয়ন নিয়ে মানুষ যাতে কোনরকম অভিযোগের আঙুল তুলতে না পারেন তার আগেই মন্ত্রী গ্রাম ঘুরে ঘুরে মানুষের সাথে কথা বলছেন তাদের সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন এমনকি সরকারি অফিসে ও বিভিন্ন আধিকারিকদের সাথে কথা বলে দ্রুত মানুষের সমস্যা মেটানোর উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন তাই তৃণমূলের ভরাডুবি এখানে হবে না এমনটাই মনে করছেন কর্মী-সমর্থকদের নেতা-নেত্রীরা।
রাস উৎসবে ও মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ প্রতিটি পুজো কমিটিকে আর্থিক সহযোগিতা করেছেন এবং নিয়মিতভাবে উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্যে দিয়ে আরো কি করে জনসংযোগ দ্রুত বানানো যায় তার উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন তিনি। প্রতিনিয়ত গ্রামগঞ্জ ঘুরছেন এবং মানুষের সাথে কথা বলছেন যাতে মানুষের পাশে থেকে ভোটের সময় নিজেরা জয়লাভ করতে পারেন সেটাই হচ্ছে বড় প্রধান কারণ।যদিও কালনা পৌরসভায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। কিন্তু এখানে দলীয় কোন্দল তুঙ্গে একদিকে বিধায়ক অন্যদিকে পৌর প্রধান। গত লোকসভা নির্বাচনে কালনা পৌর এলাকায় বিজেপির যথেষ্ট বাড়বাড়ন্ত ছিল। জেলা বিজেপির দিকে এখন যদি নিজেদের মধ্যে গোষ্ঠী কোন্দল প্রকট হয়ে থাকে তাহলে তৃণমূলকে ভাবতে হবে আগামী দিন আদৌ দল ক্ষমতাসীন হতে পারবে কিনা?তবে কালনা পৌরসভার চেয়ারম্যান দেবপ্রসাদ বাগ নিশ্চিত ফের ক্ষমতাসীন হচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস। একদিকে সরকারি প্রকল্পের উন্নয়ন অন্যদিকে মানুষের সঙ্গে যথেষ্ট সংযোগ স্থাপন করেছে তৃণমূল তাই নিয়ে কোনো ভাবার কারণ নেই।
কালনা ২নম্বর ব্লকের তৃণমূলের জয়জয়কার হবে জানিয়ে দিয়েছেন তৃনমূলের ব্লক সভাপতি প্রণব রায়। মন্তেশ্বর বিধানসভা এলাকায় তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মী সমর্থকরা এখন থেকে জনসংযোগ না বাড়ালে বিজেপির ভোটব্যাংকে ভোট বাড়বে বলে মনে করছেন ওখানকার তৃণমূলের নেতাদের একটা অংশ ইতিমধ্যেই অনেকেই বিজেপি দলে নাম লিখিয়েছেন। অন্যদিকে পূর্বস্থলী ২ নম্বর ব্লক এবং কাটোয়া মহকুমার বেশ কয়েকটি অঞ্চলে তৃণমূলের দাপট ভালো থাকলেও ভোটব্যাংকে কিভাবে ভাবছেন অনেকেই। এদিকে দিদিকে বল কর্মসূচিতে জোর দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস এই কর্মসূচির মধ্যদিয়ে কিন্তু তৃণমূল কংগ্রেসের একটা প্লাস পয়েন্ট তৈরি হয়েছে তাই আগামী দিন আড্ডা লড়াই হবে এমনটাই মনে করছেন কিন্তু তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সভাপতি রাজ্যের অন্যতম মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ তিনি আশাবাদী বিগত দিনে বিজেপির ভোট বাল্য বর্তমানে তৃণমূল কংগ্রেস ভালো জায়গায় আছে তাই আগামী বিধানসভা নির্বাচনে পূর্ব বর্ধমান জেলা জুড়ে তাদের জয় নিশ্চিত তিনি মনে করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.