প্রশাসন

মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকে নজরকাড়া সাফল্য মেমারি মামুন ন্যাশনাল স্কুল

সেখ সামসুদ্দিন

মেমারি বিদ‍্যাসাগর স্মৃতি বিদ‍্যামন্দির শাখা ১ এর ছাত্র অরিত্র পাল মাধ‍্যমিকে রাজ‍্যে প্রথম, মেমারি খাঁড়ো হাই মাদ্রাসা স্কুলের ছাত্রী সাদিয়া বানু রাজ‍্যে একাদশ জেলায় প্রথম, এই সংবাদ ইতিমধ্যে ভাইরাল হয়েছে। কিন্তু প্রচারের অলক্ষ‍্যে থেকে পাল্লা দিয়ে চলেছে বিভিন্ন মিশনের সঙ্গে মেমারি মামুন ন‍্যাশানাল স্কুল। মুসলিম পরিবারের ছেলে মেয়েদের ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার সর্বোপরি মানুষ তৈরি করার কারিগর হিসাবে কাজ করছে মামুন ন‍্যাশানাল স্কুল। এই স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা জনাব গোলাম আহমেদ মোর্তজা সাহেব। দুইটি প‍ৃথক ছেলে ও মেয়েদের আবাসিক স্কুল গড়ে মুসলিম পরিবারের ছেলে মেয়েদের পঠন পাঠন করিয়ে সমাজের একজন সুনাগরিক হিসাবে প্রতিষ্ঠা দেওয়ার সুযোগ করে দিয়েছেন। এই স্কুলের মাধ‍্যমিকে ৬৫ জন ছাত্র ও ২৮ জন ছাত্রী মিলিয়ে মোট ৯৩ জন ছাত্রছাত্রী পরীক্ষা দেয়। ছাত্রদের মধ‍্যে সর্বোচ্চ নম্বর ৬৬৩ (৯৪.৭১%) প্রাপক সেখ মিরাজুল এবং ছাত্রী বিভাগে সর্বোচ্চ নম্বর ৬৫৯ (৯৪.১৪%) প্রাপক সীমা সুলতানা। ছাত্রবিভাগে ৯০% এর উপরে ১১জন, ৮৯-৮৫% ১২ জন, ৮৪-৮০% ৯ জন এবং ৭৯-৭৫% ১৫ জন প্রাপ্ত হয়। ছাত্রীবিভাগে ৯০% এর উপরে ৬ জন, ৮৯-৮৫% ৭ জন, ৮৪-৮০% ৪ জন এবং ৭৯-৭৫% ৬ জন প্রাপ্ত হয়। অর্থাৎ ৯৩ জন ছাত্র ছাত্রী সকলেই স্টার মার্কস প্রাপ্ত হয়। এবার উচ্চ মাধ‍্যমিকে ৬৭ জন ছাত্র ও ৬৩ জন ছাত্রী পরীক্ষা দেয়। ছাত্রদের মধ‍্যে সর্বোচ্চ নম্বর ৪৮৮ (৯৭.৬০%) হিসাব অনুযায়ী রাজ‍্যে দ্বাদশ স্থান প্রাপ্ত হয় সেখ ইমানুল হক। ছাত্রটির বাড়ি পূর্ব বর্ধমানের মঙ্গলকোটের সাকোনা গ্রামে বলে জানা যায়। ছাত্রীদের মধ‍্যে সর্বোচ্চ নম্বর ৪৭৪ (৯৪.৮০%) যুগ্ম প্রাপ্ত হয় নাজিয়া মন্ডল ও আফিফা পারভিন। ছাত্র বিভাগে ৯০% এর উপরে ১৮ জন, ৮৯-৮৫% ১৯ জন, ৮৪-৮০% ১৯ জন, ৭৯-৭৫% ৪ জন এবং ৬০% এর উপরে ১জন প্রাপ্ত হয়। ছাত্রী বিভাগে ৯০% এর উপরে ২৭ জন, ৮৯-৮৫% ১৮ জন, ৮৪-৮০% ১১ জন, ৭৯-৭৫% ৪ জন এবং ৬০% এর উপরে ৩ জন প্রাপ্ত হয়। হিসাবে দেখা যাচ্ছে ১৩০ জনের মধ‍্যে চারজন ছাত্রছাত্রী ছাড়া ১২৬ জন স্টার প্রাপ্ত হয়। এই হিসাব রাজ‍্যবাসী নরেন্দ্রপুর, রহড়া, বেলুড়, পুরুলিয়া ইত্যাদি রামকৃষ্ণ মিশনের ক্ষেত্রে দেখতে অভ‍্যস্ত। সেই জায়গায় মেমারি মামুন ন‍্যাশানাল স্কুল দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছে। এই স্কুলের ছাত্রছাত্রীরা সাধারণ পঠন পাঠনের সঙ্গে ধর্মীয় শিক্ষায়ও পারদর্শিতা দেখিয়ে চলেছে। এই কারনেই দেশবিদেশের মানুষ গোলাম আহমেদ মোর্তাজা সাহেবকে কুর্ণিশ জানাতে দ্বিধা করেন না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *