মেমারিতে শারদীয় উৎসবে নাঁচলেন সাংসদ

ভিডিও

সেখ সামসুদ্দিন

হাটপুকুর পূর্ব সংহতি পল্লী সার্ব্বজনীন দুুর্গাপুজোর উদ্বোধনে এসে আদিবাসী নৃত্যে মাতলেন সাংসদ ও এসডিপিও। মেমারি হাটপুকুর এলাকায় জয় জওয়ান জয় কিষাণ থিমের ৭ম বর্ষের পুজোর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ছিলেন বর্ধমান পূর্ব লোকসভার সাংসদ সুনীল মন্ডল ও বর্ধমান সদর দক্ষিণ মহকুমা পুলিশ অফিসার আমিনুল ইসলাম। আদিবাসী নৃত্যের মাধ্যমে তাদের অভ্যর্থনা জানিয়ে মঞ্চে নিয়ে আসা হয়। সেখানে সকলের মঙ্গল কামনা জানিয়ে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন অতিথিদ্বয় এবং সময়াভাবে প্রতিকী কয়েকজনের হাতে বস্ত্র তুলে দেন। তারপরে মন্ডপে প্রদীপ প্রজ্জ্বলনের মধ্য দিয়ে ও পুষ্পার্ঘ দিয়ে পুজোর উদ্বোধন করার পর গলায় মাদল ঝুলিয়ে আদিবাসী নৃত্যে অংশ নেন। এদিন পুষ্পবৃষ্টির দায়িত্বে থাকা আট কিশোরী সহ আদিবাসী টিমকে নিয়ে ছবি তোলেন এবং ঐ কিশোরী বাহিনীকে বলেন ‘পড়াশোনা চালিয়ে যাবি, যা প্রয়োজন থাকবে বলবি পেয়ে যাবি। প্রতিষ্ঠিত না হয়ে কোনরকম বিয়ে করবি না। সময় হলে তোদের বিয়ে আমি দাঁড়িয়ে থেকে দেব।’ সাংসদের এই ব্যবহারে উপস্থিত সকলেই খুশি হন। সঞ্চালক সুবীর বিশ্বাস, কোষাধ্যক্ষ শিশির বিশ্বাস ও সম্পাদক সনাতন হেমরম বলেন পুজোর সূচনা থেকে প্রতি বছরই সাংসদ আসেন। স্বল্প বয়সী এবং মানুষের সঙ্গে মিশুকে এসডিপিও বলেন সনাতনের সঙ্গে কয়েকদিনের আলাপে বলতে গেলে উপযাচক হয়েই এই অনুষ্ঠানে এসেছেন। যদিও পুজো কমিটি আমন্ত্রণ জানিয়েছিল, না জানালেও আসতেন। পুজো কমিটির পক্ষে জানানো হয় প্রতিদিনই বাউল, আদিবাসী নাচ গান সহ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের প্রোগ্রাম রাখা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.