বাঁকুড়া শহরে বিধান শিশু উদ্যানের মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের জন্য কর্মশালা

প্রশাসন

গোপাল দেবনাথ

বাঁকুড়া শহরে বিধান শিশু উদ্যান আয়োজিত মাধ্যমিক ২০২০ ছাত্র ছাত্রীদের জন্য কর্মশালা
গত দু মাস ধরে রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় প্রায় প্রতিটি শনি ও রবিবার বিধান শিশু উদ্যানের তরফে আসন্ন মাধ্যমিক ছাত্র ছাত্রীদের জন্য আয়োজন করতে হয়েছে বিশেষ কর্মশালার। এসব কর্মশালায় বিষয় ভিত্তিক আলোচনার পাশাপাশি নম্বর বারানোর কৌশল নিয়েও দিক নির্দেশ করতে হয়েছে অভিজ্ঞ শিক্ষক শিক্ষিকাদের
বলা যায়, গতকালের বাঁকুড়ায় এই কর্মসূচির মধ্য দিয়েই শেষ হোলো প্রথম পর্বের উদ্যোগ। আগামী ১৫ অক্টোবরে থেকে শুরু হতে চলেছে আমাদের প্রথম মক টেস্ট। ফলে এর মধ্যে এই ধরনের কর্মশালার আয়োজন করা আর সম্ভব হবে না।
বিগত কয়েক বছরের মাধ্যমিকের ফলাফলের নিরিখে একথা নিঃসন্দেহে বলা যায় যে, বাঁকুড়া জেলার ছাত্রছাত্রীরা অন্যান্য জেলার ছাত্র ছাত্রীদের থেকে কিছুটা এগিয়ে। এখানে উপস্থিত বেশীরভাগ পরীক্ষার্থী ইতিমধ্যেই মাধ্যমিকের নির্দিষ্ট সিলেবাস শেষ করে ফেলেছে। ফলে এখানকার ছাত্র ছাত্রীদের পড়ানোর ব্যাপারটা শিক্ষক শিক্ষিকাদের কাছেও খুব চ্যালেঞ্জের। ছাত্র ছাত্রীদের বিভিন্ন ধরনের প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়।
পরসুদিন সমস্ত জেলাজুড়ে প্রবল বৃষ্টি হয়েছে। সুতরাং মনে হয়েছিল গতকালের এই কর্মশালায় উপস্থিতি কম হবে। কিন্তু আমাদের মকটেষ্টের বাঁকুড়া জেলার মুখ্য সংগঠক এবং বাঁকুড়া – শহর পরীক্ষা কেন্দ্রের ইন-চার্জ শ্রী সরোজ কুমার পাত্র বলছিলেন – উপস্থিতি ৩০০ ছাড়িয়ে যাবে। প্রায় ৩৫০ জন ছাত্র ছাত্রী অত্যন্ত সুশৃঙ্খলভাবে এবং ধৈর্য্যের সংগে প্রায় পাঁচ ঘণ্টা ধরে বাংলা, জীবন বিজ্ঞান এবং অংকের ক্লাস করলো। তারপর তাদের যাবতীয় প্রশ্নের উত্তর নিয়ে বাড়ি গেলো।
বাংলায় গৌরীশঙ্কর চন্দ, জীবন বিজ্ঞানে অপূর্ব কুন্ডু এবং অংকে গৌতম তালুকদার ছাত্র ছাত্রীদের ক্লাস নিয়ে খুব পরিতৃপ্ত
বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী শ্রী সরোজ কুমার পাত্র দক্ষতার সঙ্গে সমস্ত জেলাজুড়ে ছাত্র ছাত্রী স্বার্থে কাজ করে চলেছেন। তিনি গতকালের কর্মশালা পরিচালনার ক্ষেত্রেও মুস্নিয়ানার ছাপ রেখেছেন। তাঁকে যোগ্য সংগত করেছেন বিধান শিশু উদ্যানের তরফে শ্রী স্বপন দত্ত।

Leave a Reply

Your email address will not be published.