সহযোদ্ধা সম্মাননার প্রথম বর্ষ পালিত হল বর্ধমান শহরে

ক্রীড়া সংস্কৃতি

আজ বর্ধমান রামাশিস হিন্দি হাই স্কুলে বর্ধমান সহযোদ্ধার উদ্যোগে সাবেকিয়ানা ২০১৯, সহযোদ্ধা সম্মাননা প্রথম বর্ষ অনুষ্ঠিত হলো।এই সম্মাননা অনুষ্ঠানে তিনটে বিষয়ের ওপর প্রতিযোগিতা হয়।আলপনা আঁকা, মালা গাঁথা ও বরণডালা সাজানো।প্রত্যেক বিভাগের প্রথম দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানাধীকারির হাতে সহযোদ্ধার পক্ষ থেকে স্মারক তুলে দেওয়া হয়।প্রতি বিভাগের প্রথম স্থানাধীকারিকে নিয়ে হয় ‘সেরার সেরা ২০১৯’ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।সেরার সেরার হাতে তুলে দেওয়া হয় মা দুর্গার পিতলের দুর্গা মূর্তি।এদিনের অনুষ্ঠানের বিচারক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,সহযোদ্ধার সভাপতি ঋষি গোপাল মন্ডল,রাজ কলেজের অধ্যাপক ওম শংকর দুবে, বিশিষ্ট নৃত্যশিল্পী মেহবুব হাসান ,সহযোদ্ধার সহ সভাপতি কৌশিক সিনহা,জেলা আইনী পরিষেবা কর্তৃপক্ষর পিএলভী নির্মলেন্দু গুইন,বেঙ্গল স্কাউট এন্ড গাইডের পক্ষ থেকে জিতেন্দ্র নাথ চৌধুরী , সাংবাদিক পার্থ চৌধুরী।অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ,সহযোদ্ধার সম্পাদক সোমনাথ ভট্টাচার্য্য, বিশিষ্ট সমাজ সেবী যোগেশ্বর দাস বৈরাগ্য, সাংগঠনিক সম্পাদক প্রীতিলতা বন্দ্যোপাধ্যায়, নেহরু যুবকেন্দ্রর আধিকারিক সুজন ঠাকুর প্রমুখ।এদিনের অনুষ্ঠানে তিনটে বিভাগের বিভিন্ন বয়সের মোট ১১০ জন প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করেছিল।অনুষ্ঠানে উপস্থিত বিচারক ও অতিথিরা তাদের বক্তব্যে বলেন,পুরাতন দিনের ঐতিহ্যপূর্ন যে সব বিষয় গুলো মানুষের জীবন থেকে হারিয়ে যাচ্ছে সেই সব বিষয় গুলো নিয়ে সহযোদ্ধার এই প্রতিযোগিতা এক আলাদা মাত্রা এনে দিল।সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় ছিল সেরার সেরা কুইজে থাকা পৌরাণিক কালের ও পাঠ্য বই থেকে প্রশ্ন যা সাধারণ ভাবেই বিশেষ জ্ঞানের সঞ্চার ঘটায়।এই অনুষ্ঠানের মিডিয়া পার্টনার, ছিল,বাংলার খবরাখবর,সাত দিন সংবাদ,নতুন ভোর,ফোর্ত পিলার।

Leave a Reply

Your email address will not be published.