মথুরাপুরে নির্মল বিদ্যালয় সপ্তাহ

প্রশাসন

“নির্মল বিদ্যালয় সপ্তাহ” পালন পালন করল যামিনী রায় পুরস্কার প্রাপ্ত স্কুল।

সৃজনশীল দক্ষিণ২৪ পরগনা।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে ২৬ শে আগস্ট থেকে ৩১শে আগস্ট পর্যন্ত নির্মল বিদ্যালয় অভিযান শুরু হয়েছে। তারই অঙ্গ হিসাবে গত পরশু থেকে মথুরাপুর ২ নম্বর ব্লকের নন্দকুমার পুর গ্রাম পঞ্চায়েতের মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চ্যাটার্জির হাত থেকে যামিনী রায় পুরস্কার প্রাপ্ত “মধুসূদন চক প্রাথমিক বিদ্যালয়” সকাল থেকেই স্কুলের ছাত্র-ছাত্রী থেকে আরম্ভ করে অভিভাবক অভিভাবক শিক্ষক-শিক্ষিকাদের নিয়ে হুইসেল রেলি করে রাস্তাঘাটে যাতে মলমূত্র ত্যাগ না করে সে বিষয়ে সচেতন করানো হয়। এছাড়া বাড়িতে বাড়িতে পরিদর্শন করে ডেঙ্গু সম্বন্ধে সচেতন করানো হয়। তারপর স্কুলের ছাত্র ছাত্রীরা সারিবদ্ধ ভাবে স্বাস্থ্যবিধান গান, পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন এবং নির্মল স্কুলের শপথ বাক্য পাঠ, বিভিন্ন খবর পাঠ করে। স্কুলের প্রধান শিক্ষক অনুপ কুমার গোস্বামী জানালেন প্রত্যহ স্কুলের আগে প্রার্থনা শপথবাক্য পাঠ স্বাস্থ্য বিধান গান খবর পায় তাদের হয়ে থাকে। উল্লেখ্য এই স্কুলের প্রধান বৈশিষ্ট্য হলো স্কুলে রয়েছে ভেষজ উদ্যান, স্কুলের ছাত্র-ছাত্রী দ্বারা পরিচালিত হয় স্কুলের মিড ডে মিলের খাওয়া-দাওয়া। চোখে পড়ে ইস্কুলের সৌন্দর্যায়ন, স্কুলের ছাত্র ছাত্রীরা খাওয়ার আগে স্বাস্থ্য বিধানের গান গেয়ে গেয়ে সাবান দিয়ে হাত পরিষ্কার করে নাই তারপরে খেতে বসে যে যার থালা নিয়ে, খাবার গ্রুপের মহিলারা পরিবেশন করার পর স্কুলের ছাত্ররা তাদেরকে খাবার আগে বিষ্ণু মন্ত্র পাঠ করে। তারপরেই নিজেরা খেতে থাকে। খাবার পরে সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে ব্রাশ নিয়ে মাজন করে দাঁত পরিষ্কার করি তারপরে ক্লাসে যায় এই অভিনব স্কুল স্কুলের রাজ্যের মধ্যে 2018 সালের যামিনী রায় পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন এমনকি গত বছরও নির্মল বিদ্যালয় পুরস্কার পেয়েছিল বলে হেডমাস্টারমশাই জানালেন।

1 thought on “মথুরাপুরে নির্মল বিদ্যালয় সপ্তাহ

Leave a Reply

Your email address will not be published.