গুসকারায় বিহারি পট্টি তে জলের ব্যাপক অপচয়

প্রশাসন

জ্যোতি প্রকাশ মুখার্জ্জী,


রিপোর্টে প্রকাশ আগামী কয়েক বছরের মধ্যে দেশের ২১ টা শহর জলশূন্য হয়ে যাবে।দক্ষিণ ভারতের কয়েকটা রাজ্যের অবস্থা ভয়ঙ্কর ।গ্রীষ্মকালে মহারাষ্ট্র, গুজরাতের বাসিন্দাদেরও পানীয় জলের সমস্যায় পড়তে হয়। যেভাবে নিয়মের তোয়াক্কা না করে ভূগর্ভস্থ জল তোলা হচ্ছে তাতে অদূর ভবিষ্যতে পানীয় জলের অভাবে মানব সভ্যতা তথা জীবকুলের অস্তিত্ব বিলুপ্ত হতে চলেছে। সরকার বারবার সতর্ক করে চলেছে। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জ্জী পানীয় জল সংরক্ষণ করার বিষয়ে মানুষকে সচেতন করার জন্য মিছিলেও হাঁটলেন।অথচ তাঁরই রাজ্যের এক পৌরসভা এলাকায় নির্বিচারে পানীয় জল নষ্ট করতে দেখা গেল।
পূর্ব বর্ধমানের গুসকরা পৌরসভার ১২ নং ওয়ার্ড বিহারী পট্টি নামে পরিচিত। বিভিন্ন ওয়ার্ডের মত গুসকরা পৌরসভা থেকে এই ওয়ার্ডেও পানীয় জল সরবরাহ করা হয় ।কিন্তু সচেতনতার অভাবে এই ট্যাপ কলটি থেকে প্রচুর পরিমাণে পানীয় জলের অপচয় ঘটে।
গুসকরার বিগত পৌরসভার অন্যতম প্রবীণ প্রাক্তন কাউন্সিলর নিত্যানন্দ চ্যাটার্জ্জী বললেন – মানুষ সচেতন না হলে পানীয় জলের অপচয় বন্ধ করা যাবে না। জাতি, ধর্ম, বর্ণ, দলমত নির্বিশেষে সবাইকে সাধারণ মানুষকে সচেতন করার জন্য এগিয়ে আসতে হবে। দু-এক দিনের মধ্যেই আউসগ্রামের বিধায়ক কে সঙ্গে নিয়ে তিনি মানুষকে সচেতন করার উদ্যোগ নেবেন। সমস্ত গুসকরাবাসীর তিনি সহযোগিতা প্রার্থনা করছেন। অন্যদিকে তৃণমূল শহর সভাপতি কুশল মুখার্জ্জী, রাজনৈতিক নেতা হিসেবে নয়, গুসকরাবাসী হিসেবে পানীয় জলের অপচয় বন্ধ করার জন্য সবার কাছে আবেদন জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.