বিধানসভা আসনে অন্তর্ঘাতের নির্দেশ এসেছিল রাজ্য নেতাদের থেকে, বললেন বিজেপি নেতা

বিধানসভা ভোট ২০২১

কাটমানি নিয়ে যখন জোর অস্বস্তিতে তৃণমূল কংগ্রেস। ঠিক তখনই তোলা সহ একাধিক প্রসঙ্গে রাজ্য বিজেপি নেতৃত্তের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ আনলেন সদ্য অপসারিত বিজেপি সভাপতি সঞ্জিত মিশ্র।তার আরো অভিযোগ,খামখেয়ালিপনার শিকার হয়েছেন তিনি। এমনকি হবিবপুর বিধানসভা উপনির্বাচনে আসনটি তৃণমূল কংগ্রেসকে ছেড়ে দেওয়ার নির্দেশও আসে রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব এর কাছ থেকে। শুধু তাই নয় রাজ্য বিজেপি নেতৃত্বকে তোলার টাকা না পৌঁছানোর কারণেই মালদা জেলা বিজেপি সভাপতির পদ থেকে তাকে সরানো হয়েছে বলে জোরালোভাবে দাবি করেন তিনি। সদ্য অপসারিত জেলা সভাপতির এহেন মন্তব্যে মালদার রাজনৈতিক মহলে শোরগোল পড়ে গিয়েছে।ঘটনার প্রতিকার চেয়ে কেন্দ্রীয় বিজেপি নেতৃত্তের দ্বারস্থ হবেন বলে জানান সঞ্জিত মিশ্র। পাশাপাশি রাজ্য নেতৃত্তের বিরুদ্ধে আদালতে যাওয়ার হুমকি দেন তিনি। বিজেপির রাজ্য সংগঠন সম্পাদক সুব্রত চ্যাটার্জির বিরুদ্ধে একরাশ ক্ষোভ উগরে দেন তিনি বলেন,এই ষড়যন্ত্রের পিছনে সুব্রত চ্যাটার্জী প্রচ্ছন্ন মদত রয়েছে বলে জানান।এমনকি তিনি রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষের বিরুদ্ধে আঙ্গুল তোলেন। তিনি বলেন, তাকে না জানিয়েই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এমন সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা রাজ্য বিজেপি সভাপতির। কিন্তু অফিস সম্পাদকের স্বাক্ষর করা একটি কাগজে মালদা জেলা সভাপতির পদ বদল করার সিদ্ধান্তে তিনি হতবাক।পাশাপাশি আরো অভিযোগ শুধু মালদা জেলায় নয় পশ্চিমবঙ্গের প্রায় প্রতিটি জেলায় সভাপতিদের উপর তোলা তুলে রাজ্য নেতৃত্বের কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য চাপ তৈরি করা হচ্ছে বলেও নজিরবিহীন ভাবে আক্রমণ করেন তিনি।গতকাল রাজ্য নেতৃত্বের নির্দেশে অপসারিত মালদা জেলার বিজেপি সভাপতি সঞ্জিত মিশ্র।এর পর ২৪ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই অপসারিত সভাপতির বিস্ফোরক অভিযোগকে ঘিরে উত্তপ্ত জেলা এবং রাজ্য রাজনীতি । নিয়ম বহির্ভূত ভাবে তাঁকে সরানো হয়েছে তাঁকে পদ থেকে । এক্ষেত্রে তিনি রাজ্য নেতৃত্বের বিরুদ্ধে দল বাজি জেলায় নির্বাচিত সভাপতিকে ঠিক মত কাজ করতে না দেওয়া তোলা বাজি নির্বাচনে তৃনমূলকে বারতি সুভিদা পায়য়ে দেওয়ার মত বিস্ফোরক অভিজগে সোমবার সরব হলেন মালদা জেলার বিজেপি কার্যালয়ে সভাপতির আসনে বসে এক সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে । এই সমস্ত বিস্ফোরক অভিযোগ ছাড়াও দলীয় রিতি না মেনে মিথ্যে অভিযোগে তাঁকে পদ থেকে সরানোর প্রতিবাদে রাজ্য এবং কেন্দ্রিয় নেতৃত্বের বিরুদ্ধে কার্যত বিদ্রোহ ঘোষণা করে এদিন এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আদালতে যাওয়ারও হুমকি দেন তিনি ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.