বিজেপির বাড়বাড়ন্তে মুক্ত আকাশ পেল নানুরের কাজল সেখ

রাজনীতি

মোল্লা জসিমউদ্দিন,

বিজেপির বাড়বাড়ন্তে মুক্ত আকাশ পেল নানুরের কাজল সেখ। ২০১১ এর আগে রাজ্যে সিপিএম শাসনকালে লুকিয়ে থাকতেন এই কাজল। রাজ্যে পালাবদল হলেও সেই একই ছবি দেখা যেত নানুরে। সূচপুরের গনহত্যা নিয়ে যে রাজনৈতিক মাইলেজ পেয়েছিলেন তৃনমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তা ক্ষমতায় এসে বেমালুম ভুলে যান নেত্রী। ২০০০ সালে নানুরের বাসাপাড়ায় শহীদ বেদীর সামনে আল্লার নামে কসম খেয়ে মমতা বলেছিলেন – যতদিন বাঁচবো ততদিন ২৭ জুলাই শহীদ দিবস পালনে তিনি আসবেন। শহীদ পরিবারের কাজল সেখের মা কে নিজের মা বলে ডেকে ছিলেন মমতা। সেই মমতা শহীদ দিবস পালনের দিনে বোলপুরে প্রশাসনিক বৈঠক করেছেন। অথচ ২০ কিমি দূরে থাকা বাসাপাড়ায় আসার সূযোগ হয়নি তাঁর। অনুব্রত মন্ডল ওরফে কেস্টর দাপটে সিপিএমের আমলের মতনই কাজল সেখ আত্মগোপন করে থাকতেন। এরেই মাঝে শহীদ দিবস পালনে সবথেকে বড় সংগঠক সোনা চৌধুরী খুন হন। খুন হন বাম আমলে সিপিএমের বিরুদ্ধে লড়াই করা কেতুগ্রামের জাহির সেখ, মঙ্গলকোটের আজাদ মুন্সি। নিন্দুকেরা বলেন – মঙ্গলকোট – নানুর – কেতুগ্রামের রাজনৈতিক কাঁটা তুলতে বোলপুরের নেতা এইসব খুনের ষড়যন্ত্র ঘটিয়েছেন৷ সম্প্রতি লোকসভায় বিজেপির বাড়বাড়ন্তে মুসলিমদের কদর বেড়েছে তৃনমূলের কাছে। নানুরের কাজল সেখ অনুব্রত মন্ডলের ডাকে সাড়া দিয়ে বোলপুরে ঘরোয়া বৈঠক সেরেছেন। যদিও গত দেড় বছর আগে থেকেই অনুব্রত মন্ডলের পাড়ায় বাড়ি করার কাজ শুরু করে ছিলেন কাজল সেখ। নানুরের এক পুলিশ অফিসার এই মিডলম্যানের কাজ করেছিলেন বলে পুলিশ সুত্রে প্রকাশ। বিজেপির বাড়বাড়ন্তে মুক্ত আকাশ পেল নানুরের কাজল সেখ। কাজল সেখ এখন নানুরে প্রকাশ্যে বিজেপির বিরুদ্ধে জনমত গড়ে তুলছেন।

1 thought on “বিজেপির বাড়বাড়ন্তে মুক্ত আকাশ পেল নানুরের কাজল সেখ

Leave a Reply

Your email address will not be published.