প্রশাসন

কলকাতা পুরসভার প্রশাসকমন্ডলীর মেয়াদ বাড়িয়ে চুড়ান্ত রায় ২৮ জুলাই

মোল্লা জসিমউদ্দিন (টিপু) ,


সোমবার দুপুরে কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চ ভারচুয়াল শুনানিতে  কলকাতা পুরসভার প্রশাসক নিয়োগ মামলায়  জানিয়ে দেয় – ‘আগামী ১০ আগস্ট পর্যন্ত বহাল থাকবে কলকাতা পুরসভার কেয়ারটেকার বোর্ডের মেয়াদ’। পাশাপাশি এই মামলায় চুড়ান্ত রায় জানানো হবে চলতি মাসের ২৮ তারিখে। সুপ্রিম কোর্টের আদেশনামায় মামলায় দ্রুত নিস্পত্তি করার নির্দেশিকা থাকায় বহুচর্চিত কলকাতা পুরসভার রায় জানা যাবে ওইদিনই। উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাসের মহামারী পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে কলকাতা পুরসভার মেয়র পদের মেয়াদ শেষ হলেও রাজ্য সরকার এই পুরসভাতে প্রশাসক মন্ডলী নিয়োগ করে থাকে।    এই প্রশাসক মন্ডলীর সাংবিধানিক এবং আইনী বৈধতা কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে উত্তর কলকাতার বাসিন্দা শরদ সিং কলকাতা হাইকোর্টে মামলা দাখিল করে থাকেন৷ গত ৭ মে কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি সুব্রত তালুকদার কলকাতা পুরসভার প্রশাসক মন্ডলী নিয়োগে সাংবিধানিক এবং আইনী বৈধতা প্রশ্ন বিচারধীন রেখে একমাসের জন্য কেয়ারটেকার বোর্ডের মান্যতা দেন। সার্বিক করোনা স্বাস্থ্যবিধি বজায় রেখে এই নির্দেশিকা জারি করা হয় কলকাতা হাইকোর্টের তরফে। কলকাতা হাইকোর্টের সিঙ্গেল বেঞ্চের এহেন রায় কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে পুনরায় ডিভিশন বেঞ্চের দারস্থ হন মামলাকারীরা৷ গত ১২ মে কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি ইন্দ্রপ্রসন্ন মুখোপাধ্যায় এবং বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চ সিঙ্গেল বেঞ্চের রায় কে বহাল রেখে কলকাতা পুরসভার প্রশাসক মন্ডলীর ( কেয়ারটেকার বোর্ড) মেয়াদ বাড়িয়ে দেয় ২০ জুলাই অবধি। তবে ডিভিশন বেঞ্চের পর্যবেক্ষণ ছিল – ‘রাজ্য সরকার অডিন্যান্স জারি করে কলকাতা পুরসভায় প্রশাসকমন্ডলী নিয়োগ করতে পারতো ‘। হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চের এই রায়ের বিরুদ্ধে গত ৩ জুন সুপ্রিম কোর্টের দারস্থ হন মামলাকারীরা। সুপ্রিম কোর্ট মামলা গুরত্ব বুঝে পুনরায় কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে এই মামলার দ্রুত নিস্পত্তি করার নির্দেশ দেয়। মামলাকারীদের বক্তব্য ছিল – মেয়াদ শেষ হওয়ার পূর্বে কিভাবে রাজ্য পুর ও নগর উন্নয়ন দপ্তর তড়িঘড়ি বিজ্ঞপ্তি জারী করে     প্রশাসক মন্ডলী নিয়োগ করে কিভাবে ?  কেননা বিদায়ী মেয়রই রাজ্যের সংশ্লিষ্ট দপ্তরের মন্ত্রী! । সংবিধানের ১৪, ১৯, ২১ ধারা নিয়ে প্রশ্ন উঠে এই মামলার পরিপেক্ষিতে। তবে মহামারির জেরে জনপরিষেবা স্বাভাবিক রাখার জন্য এই নিয়োগ বলে রাজ্য সরকার জানিয়ে দেয়।    ২০ জুলাই অবধি যেমন ছিল এই কেয়ারটেকার বোর্ডের মেয়াদসীমা। ঠিক তেমনি উভয় পক্ষের হলফনামা পেশের দিনক্ষণ ছিল ২০ জুলাই। সোমবার দুপুরে ভার্চুয়াল শুনানিতে কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ এই কেয়ারটেকার বোর্ডের মেয়াদ বাড়িয়ে দেয় আগামী ১০ আগস্ট পর্যন্ত পাশাপাশি ২৮ জুলাই এই মামলার চুড়ান্ত রায় জানানো হবে বলে জানানো হয়েছে ডিভিশন বেঞ্চের তরফে৷ আগামী ২৮ জুলাইয়ের দিকে তাকিয়ে রাজ্যরাজনীতি।                                                                                                                                                                                   

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *