প্রশাসন

দক্ষিণ বারাশাতে সৌম্যদ্বীপ মাধ্যমিকে সেরা দশে

উজ্জ্বল বন্দ্যোপাধ্যায়

, জয়নগর : আবার জয়নগর থানার দক্ষিন বারাশত শিবদাস আচার্য হাইস্কুল সংবাদ শিরোনামে। এই স্কুল থেকে এবছর মাধ্যমিকে ৮ম স্থান অর্জন করেছে সৌম্যদীপ সরদার। মাধ্যমিকের ফলপ্রকাশের ৪৮ ঘন্টার ভেতর উচ্চ মাধ্যমিকের ফলপ্রকাশ করলো সংসদ। করোনা আবহে এবছর উচ্চ মাধ্যমিকের শেষ তিনটি বিষয়ের পরীক্ষা নিতে পারি নি সংসদ। বার বার পরীক্ষার সূচী বদল করে ও করোনার আতঙ্কে শেষ অবধি তিনটি পরীক্ষা নিতে পারি নি সংসদ। অন্যান্য বিষয়ের গড় ধরে রেজাল্ট আউট করা হয়েছে এ বছরের উচ্চ মাধ্যমিকের।জয়নগর থানার দক্ষিন বারাশত শিবদাস আচার্য হাইস্কুলের এই অভাবনীয় সাফল্যে খুশি এলাকার মানুষ। এ বছরের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় ৪৯৩ পেয়ে রাজ্যের মধ্যে ৭ ম স্থান অধিকার করে নিয়েছে জয়নগর থানার দক্ষিন বারাশত শিবদাসআচার্য হাইস্কুলের বিপাশা চক্রবর্তী।কলা বিভাগ থেকে সে এই নং পেয়েছে।বাবা মৃত্যুঞ্জয় চক্রবর্তীর অটোমোবাইলসের ব্যবসা, মা ময়না চক্রবর্তী গৃহবধূ। দুই বোনের মধ্যে বিপাশা বড়। ছোট বোন মেঘনা নবম শ্রেণিতে পরে। বিপাশা ২০১৮ সালে সরবেড়িয়া শতদল বালিকা বিদ্যালয় থেকে পাশ করে দক্ষিন বারাশত শিবদাস আচার্য হাইস্কুলে কলা বিভাগে ভর্তি হয়।৮ জন গৃহ শিক্ষকের কাছে পড়াশোনার পাশাপাশি অবসর সময়ে সে আবৃত্তি শুনতে ভালোবাসে। একসময় ভালো গীটার বাজালে ও পড়াশোনার চাপে তা আর বেশি দূর এগোয় নি।তাঁর বিষয় ভিওিক ফলাফল হলো-বাংলা -৯৬, ইংরেজি-৯৮ ,কম্পিউটার -৯৮, ফিলোজপি -৯৯, এডুকেশন -৯৯ , ভূগোল -৯৯। গোচরনের নিজের বাড়িতে বসে সে জানালেন, আমি নিজে এত ভালো ফল করবো আশা করি নি। আমি মানুষের মতন মানুষ হতে চাই।নিজে সাবলম্বী হয়ে মেয়েদের সাবলম্বী করতে চাই এবং ভবিষ্যতে আমার ঠাকুমার মতন শিক্ষিকা হতে চাই। আমার এই অভাবনীয় ফলাফলের পিছনে আমার মার অবদান সবচেয়ে বেশি। মা সহ বাকীদের অনু প্রেরনায় আজ আমার এই সাফল্য। আমার খুব ভালো লাগে গোয়েন্দা গল্প পড়তে। সত্যজিত রায়, শরদিন্দু বন্দ্যোপাধ্যায়, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও স্মরনজিত চক্রবর্তী আমার প্রিয় লেখক।শেষের কবিতা ও ব্রততী বন্দ্যোপাধ্যায়ের আবৃত্তি শুনতে ভালো লাগে। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংরেজি অনার্স নিয়ে ভর্তি হওয়ার ইচ্ছে আছে। ফল প্রকাশের পরে বিপাশার বাড়িতে গিয়ে শুভেচ্ছা ও শুভকামনা জানিয়ে আসেন স্থানীয় নারায়নী তলা গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান অশোক সাহা সহ আরো অনেকে।পরপর দুটি পরীক্ষায় তাঁর স্কুল এত ভালো ফল করায় রীতিমতো খুশি দক্ষিন বারাশত শিবদাস আচার্য হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক দেবদীপ ভট্টাচার্য্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *