ক্রীড়া সংস্কৃতি

অপেরা মিস ইন্ডিয়া ২০ তে জিতলেন শিঞ্জিনী দত্ত

গোপাল দেবনাথ,

: কলকাতা, ১৭, অক্টোবর, ২০২০। সুন্দর ও রূপের কদর সর্বত্র। আর রূপের সাথে গুন থাকলে তাহলে তো সোনায় সোহাগা। প্রাচীনকাল থেকেই রূপবান ও রূপবতীদের প্রায় দেব দেবীর আসনে বসিয়ে দেওয়া হয়। এমনকি সিনেমা বা সিরিয়ালে অভিনয়ের ক্ষেত্রেও অভিনয়ের সাথে সুন্দর চেহারার মানুষদের বেশি কদর করা হয়ে থাকে। বর্তমানে প্রায় সব দেশেই সৌন্দর্য প্রতিযোগিতার করা হয়। সৌন্দর্যের ক্ষেত্রে আমাদের দেশ  তথা আমাদের রাজ্যের মেয়েদের বিশ্বজোড়া সুখ্যাতি আছে সৌন্দর্য প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হওয়ার জন্য। কলকাতার মেয়ে শিঞ্জিনী দত্ত সম্মানিত হলেন অপেরা মিস ইন্ডিয়া ২০২০, সিজন -৩ তে। এই বিউটি পাজেন্ট এ অংশগ্রহণ করেছেন ১৫ টি বিভিন্ন দেশ সুন্দরীরা। গত ১১ অক্টোবর শিঞ্জিনী দত্ত বিজয়ী ঘোষিত হয়েছে  গ্র্যান্ড ফিনালে তে । ওপেরা মিস ইন্ডিয়া গ্লোবাল- ২০২০ তে ১৬ জন ফাইনালিস্ট দের মধ্যে তিনি ছিলেন অন্যতম। শিঞ্জিনী অনেকগুলি সাবটাইটেল এর অধিকারী হন, সেই সাবটাইটেল গুলি হল মিস ফ্যাশন আইকন এবং মিস বিউটি উইথ পারপাস্। এই বিউটি প্রেজেন্ট তিন দিন ধরে অনুষ্ঠিত হয়।সেমি ফাইনাল রাউন্ড এর ট্যালেন্ট রাউন্ড থেকে এই বিউটি প্রেজেন্ট অনুষ্ঠান শুরু হয়েছিল। শিঞ্জিনি’ র প্রতিভা ট্যালেন্ট রাউন্ডে বিচারকমণ্ডলীর মন জিতে নেয় অসাধারণ সিন্থেসাইজার বাজিয়ে। এর পরবর্তী পর্যায়ে ফিটনেস, রেম্প ওয়াক, পারসোনালিটি ডেভেলপমেন্ট সেশন এর উপর প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। এর পরবর্তী শেষ এবং সর্বশ্রেষ্ঠ দিনে এই বিউটি পেজেন্ট এর অনুষ্ঠানটি তিনটি পর্যায়ে বিভক্ত হয়। তিনটি পর্যায় হল যথাক্রমে পরিচয় রাউন্ড , প্রশ্ন-উত্তর রাউন্ড এবং রেম্প ওয়াক রাউন্ড। এথনিক, ওয়েস্টার্ন , এবং প্রপ রাউন্ড এ ফাইনালিস্টদের বিভিন্ন রকম টাস্ক করতে দেওয়া হয়, তার মধ্যে ছিল বিশ্বব্যাপী কোভিড -১৯’ নিয়ে সচেতনতা ছড়িয়ে দেওয়া। এই সচেতনতা সৃষ্টি করার জন্য শিঞ্জিনী ক্যান্সার রোগী ও দরিদ্র শিশুদের কাছে পৌঁছে গিয়ে তাদেরকে সচেতন করার কাজে ব্রতী হয়। শিঞ্জিনী গান্ধী সেবা সংঘে যায় এবং হাতে তৈরি মাস্ক ও স্যানিটাইজার বিতরণ করে। সে বিজয়ী বিবেচিত হয় বিভিন্ন প্রকার কাজকর্ম, রেম্প ওয়াক, ব্যক্তিত্ব এবং সাধারণ জ্ঞানের ধারণার উপর নির্ভর করে। পেশাগত দিক থেকে শিঞ্জিনী দত্ত একজন প্রফেশনাল মেকআপ আর্টিস্ট। সে তার পোস্ট গ্রাজুয়েশন এবং মাস্টার্স কমপ্লিট করেছেন সোশ্যালওয়ার্ক এর উপর কলকাতার সেন্ট জেভিয়ার্স ইউনিভার্সিটি থেকে। বর্তমানে সে বিভিন্ন রাজ্য এবং জেলার মেয়েদের স্বনির্ভর করে তোলার জন্য মেকআপ এর উপর ট্রেনিং দিচ্ছেন। কলকাতার বুকে তার মেকআপ স্টুডিও নিয়ে সম্মানের সাথে কাজ করে যাচ্ছেন।
শিঞ্জিনী এক সাক্ষাৎকারে বললেন, “আমার লক্ষ্য হলো মহিলাদের আত্মসক্ষম করা এবং শিশুদের শিক্ষা অন্তর্ভুক্ত করা । আমি বিশ্বাস করি এই মঞ্চ আমাকে সেই সুযোগ দেবে যথার্থ প্রভাবক হতে।”
এই কম্পিটিশন সংগঠিত করেছিল ওপেরা মিডিয়া এবং রিগ্রেশন প্রাইভেট লিমিটেড। তারা ভারতবর্ষ ছাড়াও বিভিন্ন দেশ থেকে অনেক প্রতিযোগীদের অংশগ্রহণ করার  সুযোগ করে  দেয়। এই অনুষ্ঠানে সহযোগিতার হাত বারওয়ে দেয় হিন্দি গৌরব অফ সিডনি। যারা নিয়মিত ভাবে বিউটি পাজেন্ট প্রত্যেক বছর ভারতবর্ষ ও অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন শহরে আয়োজন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *