‘পথ’ সাহিত্য পত্রিকার উদ্যোগে সাহিত্য আসর

ক্রীড়া সংস্কৃতি

রাজকুমার দাস:–ছোট্ট একটা স্বপ্ন নিয়ে শুরু হয়েছিল পথ সাহিত্য পত্রিকার পথচলা। যে সমস্ত অপরিচিত গ্রাম ও শহরের তরুণ গবেষক নামকরা পত্র-পত্রিকায় লেখার সুযোগ পায় না তাদের দিয়ে লেখাতে হবে। সম্পাদক মনোরঞ্জন সরদার নিজের অসুবিধা অনুভব করে এই স্বপ্ন দেখেছিলেন। যে ছাত্র- গবেষকগণ নিজেদের খাবার জোগাড় করতে পারেন না অর্থকষ্টে বা মাথার উপর এমন কেউ নেই যাঁরা বলে দেবেন প্রতিষ্ঠিত সম্পাদকদের, সেইসব সাধারণ লেখক-গবেষকদের লেখার সুযোগ করে দেওয়া প্রয়োজন —- এই সচল ইচ্ছে নিয়ে পত্রিকাটির প্রথম সংখ্যা প্রকাশিত হয় ২০০৬ সালে। সেই থেকে সাধ্যমত প্রতি বছর একটি বা দুটি সংখ্যা প্রকাশিত হয়েছে।
পত্রিকাটির স্বভাবই পথের মতই মুক্ত। অনেকেই পত্রিকার সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন,কাজ করেছেন, লিখেছেন ।
সময়ের স্বাভাবিক সত্য মেনে নিয়ে বিজ্ঞাপন মুক্ত এই পত্রিকাটি এগিয়ে চলেছে নতুন ও বিশিষ্ট লেখকদের লেখা প্রকাশ করে।
“পথ “সাহিত্য পত্রিকায় প্রতি বছর একটি সাধারণ ও একটি বিশেষ সংখ্যা প্রকাশিত হয়। বিশেষ সংখ্যা গুলি নির্বাচনের ক্ষেত্রে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে সেইসব সাহিত্য সাধকদের যাঁদের কথা শিক্ষিত বাঙালি ভুলতে বসেছেন। শিবরাম চক্রবর্তী, কালীপ্রসন্ন সিংহ প্রমুখ স্রষ্টা বিশেষ সংখ্যার বিষয় হয়ে উঠেছিল। তবে পত্রিকাটি এই প্রথম কোনো জীবিত প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিককে নিয়ে সংখ্যা প্রকাশ করেছেন।
পত্রিকাটি এবারের সংখ্যা– স্বপ্নময় চক্রবর্তী কে নিয়ে। সংখ্যাটির প্রকাশ অনুষ্ঠান হয়ে গেল ২৫ মার্চ। পত্রিকাটির মোড়ক উম্মোচন করলেন বঙ্গীয় সাহিত্য পরিষদের সভাপতি শিক্ষাবিদ শ্রী বারিদবরণ ঘোষ। উপস্থিত ছিলেন শিক্ষাবিদ শ্রী রতনকুমার নন্দী, সাংবাদিক শ্রী কৃষ্ণকুমার দাস, কথাসাহিত্যিক শ্রী তপন বন্দ্যোপাধ্যায়, শ্রী নলিনী বেরা এবং স্বপ্নময় চক্রবর্তী নিজেই। কথাসাহিত্য নিয়ে এঁদের আলোচনায় দর্শকদের মুগ্ধ করেছে। এছাড়াও এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কবি মিহির সরকার, পিনাকী রায়, সুব্রত চন্দ প্রমুখ। অনুষ্ঠানটিকে কথায় গানে সমৃদ্ধ করেছেন শিল্পী মৌসুমী দাস, চিত্রা সরকার, সুরঞ্জনা সরদার, পায়েল কর, পূবালী ধর, পারমিতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একই সঙ্গে কবি জ্যোতির্ময় সরদারের একটি ছড়াগ্রন্থ প্রকাশিত হয়। অনুষ্ঠান শেষ হয়েছে সভাপতির মনোমুগ্ধকর বক্তব্যে ও পত্রিকার সদস্যদের প্রতি আশীর্বচনে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.