প্রশাসন

বাঁকুড়ার টেরাকোটা গ্রামে মাধ্যমিকে সাফল্য

সাধন মন্ডল

টেরাকোটা গ্রাম নামে খ্যাত বাঁকুড়ার প্রত্যন্ত গ্রাম পাঁচমুড়া। এখানে টেরাকোটার তৈরি মাটির হাতি ঘোড়া মনসা চালি সারা ভারত বর্ষ জুড়ে খ্যাতি লাভ করেছে। এমনকি টেরাকোটার বিভিন্ন সামগ্রী বিদেশ পাড়ি দিচ্ছে সেই টেরাকোটা গ্রামের দুটি বিদ্যালয়ের মাধ্যমিকের ফলাফল নজর কেড়েছে। পাঁচমুড়া মৃণাল কান্তি বালিকা বিদ্যালয়ের ছাত্রী অন্বেষা নন্দী 674 নাম্বার পেয়ে এলাকার মুখ উজ্জ্বল করেছে এছাড়া ওই বিদ্যালয়ের ছাত্রী মৈত্রী দে 628 পৃতিষা চক্রবর্তী 613 বৃষ্টি দত্ত 612 সুমনা মাসান্ত 611 নাম্বার পেয়ে বিদ্যালয়ের মুখ উজ্জ্বল করেছে.। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা চম্পা পান বলেন আমাদের বিদ্যালয়টিএকটি প্রত্যন্ত গ্রামের মধ্যে অবস্থিত এলাকার যে সমস্ত মেয়েরা পড়াশোনা করে তাদের বেশিরভাগটাই খেটে খাওয়া পরিবার থেকে উঠে আসা বাড়ির কাজকর্ম সেরে যেটুকু সময় পায় সেটুকু পড়ে ও শিক্ষক-শিক্ষিকাদের পাঠদানের মধ্য দিয়ে এই সাফল্য এসেছে। আবার আমাদের সাথেসাথে কিছু কিছু ছাত্রীর গৃহশিক্ষকের অবদানকে অস্বীকার করা যাবে না। পাঁচমুড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পীযূষকান্তি সিংহ মহাপাত্র বলেন আমাদের বিদ্যালয় প্রতি বছরের ন্যায় এ বছরও ফলাফলে একটা ভালো ধারাবাহিকতা বজায় রেখেছে এবারে আমাদের বিদ্যালয়ের মাধ্যমিকে সর্বোচ্চ নাম্বার প্রাপক সৌম্যদীপ কুম্ভকার তার প্রাপ্ত নম্বর 643 এছাড়া সুকান্ত মাঝি 638 শুভজিৎ দত্ত 620অনুপম দত্ত 603 কনিষ্ক রায় 601 পেয়ে বিদ্যালয়ের মুখ উজ্জ্বল করেছে। পিছিয়ে পড়া এলাকার ছাত্রদের এই ফলাফল আমাদের গৌরবান্বিত করেছে, আবার আমাদের শিক্ষক-শিক্ষিকাদের দায়িত্ব অনেকটা বাড়িয়ে দিয়েছে। শিক্ষক শিক্ষিকাদের সাথে ছাত্র-ছাত্রীদের গৃহ শিক্ষকদের অবদান অনস্বীকার্য। পাঁচমুড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র সৌম্যদীপ কুম্ভকার বলে আমাদের বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষিকারা যথেষ্ট ভাল পড়ান তাছাড়া আমাদের গৃহশিক্ষকদের অবদানও যথেষ্ট এই ফলাফলের জন্য। বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষিকাদের যেমন অবদান রয়েছে ছাত্র-ছাত্রীদের ভালো রেজাল্টের ক্ষেত্রে তেমনই গৃহ শিক্ষক শিক্ষিকাদের অবদান যথেষ্ট রয়েছে বলে আমি মনে করি। আবার আপনারা দেখুন মাধ্যমিকে মেধা তালিকায় যারা 1 থেকে 10 এর মধ্যে স্থান করেছে তারা সকলেই প্রায় প্রতিটি বিষয়েই গৃহশিক্ষকের কাছে পড়াশোনা করেছেন তাই গৃহ শিক্ষকদের অবদানও ভূলে যাবার নয়। আগামীদিনে এলাকার ছেলেমেয়েরা আরো ভালো ফল করুক এই আশা রাখি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *