মাছ চুরি রুখতে পুকুরের চারপাশে বিদ্যুৎ, ঘাস কাটতে গিয়ে তাতে জখম ২ মহিলা

পুলিশ

সৃজন শীল,

ঘাস কাটতে গিয়ে বিদ্যুৎপৃষ্ঠ হয়ে গুরুতর আহত হলো দুই মহিলা। ঘটনাটি ঘটে দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার পাথরপ্রতিমা ব্লকেরের কেদার পুর গ্রাম পঞ্চায়েতে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায় আজ সকালে শরমা মাইতি (স্বামী লক্ষণ), ঘাস কাটার জন্য ওই পুকুরের ধারে যায়, বেড়ার গায়ে হাত দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তাকে বিদ্যুৎ ধরে নেয়, তখনি চিৎকার-চেঁচামেচিতে অঞ্জলি বারুই ছুটে গিয়ে তাকে ছাড়াতে গেলে তিনিও বিদ্যুৎপৃষ্ঠ হন। স্থানীয় লোকজন পাশে থাকা মেন সুইচ ফেলে দিয়ে দুজনকে উদ্ধার করে রায়দিঘি গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যায়। অভিযুক্ত বাবলু মন্ডলের বাড়ি দিগম্বর পুর অঞ্চলে বলে জানা যায়। সে তার শ্বশুর বাড়িতে ঘরজামাই থাকতো, শ্বশুরের নাম পান্নালাল বেরা। স্থানীয় সূত্রে জানা যায় শ্বশুরের সঙ্গে গন্ডগোল লেগেই ছিল। স্থানীয় লোকজনের ধারণা শ্বশুরবাড়ির লোকজন যাতে মাছ ধরতে না পারে সেই কারণেই পুকুরে চতুর্দিকে জি আই তারের বেড়ায় বিদ্যুৎ লাগিয়ে রেখেছিল। দিনের বেলাতে ও সে বিদ্যুৎ বন্ধ করতো না সেটা প্রমাণিত। আশঙ্কাজনক অবস্থায় রায়দিঘি গ্রামীণ হাসপাতালে দুজনকে ভর্তি করা হয়েছে তবে শরমা মাইতি মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে তাকে ডায়মন্ড হারবার জেলা হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। পাথরপ্রতিমা থানার সেভিক এর মাধ্যমে পুলিশ আধিকারিক কে ঘটনাটি জানানো হয়।পুলিশ আধিকারিকের সঙ্গে কথা বলে জানা যায় এই ঘটনার তারা তদন্ত শুরু করেছে, অবিলম্বে তাকে গ্রেফতার করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.