কয়লা ও গরু পাচার মামলায় ধৃত বিকাশ মিশ্রের বিরুদ্ধে হাজার কোটি টাকার লেনদেনের তথ্য,

পারিজাত মোল্লা,
এবার চাঞ্চল্যকর দাবি সিবিআইয়ের তরফে। তাও পশ্চিম বর্ধমান জেলার আসানসোল সিবিআই এজলাসে। কয়লা  এবং গরু পাচার মামলায় অভিযুক্ত বিকাশ মিশ্রের বিরুদ্ধে প্রায় এক হাজার কোটি টাকার অবৈধ লেনদেনের তথ্য রয়েছে, কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা এইরকম দাবি  আসানসোল সিবিআই এজলাসের কাছে। গত  সোমবার কয়লা ও গরু পাচার মামলায় বিকাশ মিশ্রের  জামিনের আবেদন খারিজ করে দেন ভারপ্রাপ্ত বিচারক রাজেশ চক্রবর্তী। সেইসাথে আসানসোল সিবিআই এজলাসের বিচারকের  নির্দেশনামায় ধৃত বিকাশ মিশ্রের  বিরুদ্ধে সিবিআইয়ের পেশ করা বেআইনি লেনদেনের কথা উল্লেখ রয়েছে বলে আইনজীবীদের একাংশ জানাচ্ছেন। কয়লা ও গরু পাচার মামলায়  ধৃত বিকাশ মিশ্র  আসানসোল জেলে রয়েছেন। আগামী শুক্রবার  বিকাশ কে   আসানসোল সিবিআই এজলাসে  পেশ করা হবে।  গত ২৭ এপ্রিল  ধৃত বিকাশ মিশ্র এর আইনজীবী জামিনের আবেদন জানিয়েছিলেন । এই পিটিশনের পরিপ্রেক্ষিতেই গত সোমবার শুনানি হয়েছে। গত সোমবার এই জামিন বিষয়ক শুনানি পর্বে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই আদালত কে জানায়, -‘  অভিযুক্ত বিকাশ মিশ্রের  বিরুদ্ধে প্রায় এক  হাজার কোটি টাকার অবৈধ লেনদেনের তথ্য পাওয়া গিয়েছে’। ওইদিনই এই লেনদেন  সংক্রান্ত তথ্য আদালতে পেশও করা হয়। সিবিআই এর দাবি, -‘  বিনয় মিশ্রের কয়লা পাচারের টাকা মূলত তাঁর ভাই বিকাশের মাধ্যমেই বিভিন্ন জনের কাছে পাঠানো হত’। বিনয়  মিশ্র বর্তমানে  ভানুয়াতুর নাগরিকত্ব নিয়েছেন। বিনয় মিশ্র কে আগামী ২০ জুনের মধ্যে আসানসোল বিশেষ সিবিআই আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক র। যদি এই সময়ের মধ্যে বিনয় মিশ্র  আদালতে হাজির না হন, তবে তাঁর সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার জন্য আদালতে আবেদন করা হবে বলে সিবিআই সূত্রে প্রকাশ ।চলতি বছরের  গত ৮ এপ্রিল আসানসোলের বিশেষ সিবিআই আদালতে তোলা হয়েছিল বিকাশ মিশ্র কে । ওই দিন সিবিআইয়ের তরফে তাঁকে আর হেফাজতে চাওয়া হয়নি।আসানসোল সিবিআই এজলাসের  বিচারক বিকাশ মিশ্র কে  ২২ এপ্রিল পর্যন্ত জেল হেফাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন। তবে এর পাশাপাশি গত ৮ এপ্রিলই বিকাশ মিশ্র কে গরু পাচার মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বিচারকের কাছে নিজে৮হেফাজতে চেয়ে আবেদন করে সিবিআই। বিচারক ধৃত বিকাশ মিশ্র কে  ১০ দিনের হেফাজতে পাঠান।পরবর্তীতে জেল হেফাজতে থাকার নির্দেশ জারি করা হয়। আগামী  ৬ মে বিকাশ মিশ্র কে  ফের বিশেষ সিবিআই আদালতে তোলা হবে।এরেই মধ্যে জামিনের আবেদন নিয়ে এক শুনানি পর্বে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই কয়লা ও গরু পাচার মামলায় ধৃত বিকাশ মিশ্রের বিরুদ্ধে এক হাজার কোটি টাকার লেনদেনের তথ্য তুলে দিলো আদালতের কাছে।এই তথ্য অনুযায়ী প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতা সহ পুলিশের অনেক অফিসার ফাঁসতে চলেছেন বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। 

Leave a Reply

Your email address will not be published.