রাজনীতি

বৃষ্টি মাথায় নিয়ে ৫০০ জন বিরোধী কর্মীসমর্থক এলেন রাইপুর তৃনমূলে

সাধন মন্ডল

প্রচণ্ড বৃষ্টিকে উপেক্ষা করেই এলাকার মানুষ বিজেপির মিথ্যা প্রতিশ্রুতি আর অনিয়মের প্রতিবাদে এবং মমতা ব্যানার্জির উন্নয়নের সাথী হতে তৃনমূল কংগ্রেসের পতাকা তুলে নিলেন এলাকার প্রায় পাচঁশো জন। আজ রাইপুর ব্লকের মণ্ডলকুলি অঞ্চলের সাতপাট্টায় অবস্থিত রাইপুর ব্লক যুব তৃণমূল কংগ্রেস কার্য্যালয়ে সাতপাট্টা,কেন্দুয়াপাড়া,লালবাঁধ,মেঘিশোল, চাঁপাপাল, ডাঙারসাই সহ আরো কয়েকটি গ্রামের ১৬৪ টি  পরিবার বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান করলেন বলে জানালেনজেলা যুব সভাপতি ও রাইপুর বিধানসভার বিধায়ক।
বাঁকুড়া জেলা যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি রাজকুমার সিংহ তাদের হাতে তৃণমূলের পতাকা তুলে দিয়ে তাদেরকে মণ্ডলকুলি অঞ্চল যুব তৃণমূলে সামিল করলেন।উপস্থিত ছিলেন রাইপুর বিধানসভার বিধায়ক বীরেন্দ্রনাথ টুডু,রাইপুর ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি ধীরেন্দ্রনাথ হেমব্রম,রাইপুর ব্লক যুব তৃণমূলের সভাপতি সঞ্জয় মণ্ডল,মণ্ডলকুলি অঞ্চল যুব তৃণমূলের সভাপতি অনিমেষ ঘোষ সহ প্রতিটি বুথ থেকে আগত নেতা,কর্মী ও সমর্থক বৃন্দ। অনুষ্ঠানে জেলা তৃণমূল যুব সভাপতি রাজকুমার সিংহ বলেন কিছু মানুষ ভুল করে ফেলেছিল তারা তাদের ভুল বুঝতে পেরেছে তাই তারা বিজেপির মোহ কাটিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসে ফিরে এসেছেন। আবারো অনেকেই ফিরে আসতে চাইছেন আগামী বিধানসভা নির্বাচনে এলাকায় তৃণমূলের জয়জয়কার অব্যাহত থাকবে। রায়পুর বিধানসভার বিধায়ক বীরেন্দ্রনাথ টুডু বলেন মা মাটি মানুষের সরকার সাধারণ মানুষের সরকার। আপামর জনসাধারণ এই সরকারের আমলে বিভিন্নভাবে উপকৃত হচ্ছেন। নানান প্রকল্প দিদি ঘোষণা করেছেন যেখান থেকে একটি শিশু জন্মের সময় থেকে বৃদ্ধ বয়সে মারা যাওয়া পর্যন্ত বিভিন্ন প্রকল্পে সুযোগ-সুবিধা পাচ্ছেন যা মমতাময়ী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মস্তিষ্কপ্রসূত। সারাদেশে তথা বিশ্বে সমাদৃত কন্যাশ্রী প্রকল্প যা মেয়েদের স্বাবলম্বী করে তুলেছে। খেতমজুর থেকে ছাত্র-ছাত্রী বৃদ্ধ-বৃদ্ধা সকলেই এই সরকারের আমলে সরকারের সুযোগ-সুবিধায় উপকৃত হচ্ছেন যা সাধারণ মানুষ কখনই কল্পণা করতে পারেনি। তাই আগামী বিধানসভা নির্বাচনে মমতা ব্যানার্জির হাতকেই শক্ত করার আহ্বান জানান বিধায়ক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *